ঢাকা ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

পর্নোগ্রাফি কেলেংকারিতে এবার রাজের সহযোগী গ্রেপ্তার

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ২০ জুলাই ২০২১ ১৫:০৩:৫৩
পর্নোগ্রাফি কেলেংকারিতে এবার রাজের সহযোগী গ্রেপ্তার

ভারতে পর্নোগ্রাফি কেলেংকারিতে ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেপ্তারের একদিন পরই তার সহযোগী রায়ান থর্পকেও বেড়ি পরিয়েছে দেশটির পুলিশ। মঙ্গলবার (২০ জুলাই), মুম্বাই পুলিশ পর্নোগ্রাফি তৈরি ও প্রচারের মামলায় রায়ানকে গ্রেপ্তারের কথা নিশ্চিত করেছে। 

বলিউড তারকা ও অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রা এই পর্ণগ্রাফি চক্রের মূল হোতা বলে দাবি করেছে মুম্বাই পুলিশ। এনিয়ে যথেষ্ট প্রমাণ ও তথ্য তাদের কাছে রয়েছে।

সোমবার রাতে মুম্বাই পুলিশ এক বিবৃতিতে জানায়, গত চার ফেব্রুয়ারিতে পর্নোগ্রাফি ফিল্ম তৈরি করে, তা বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে প্রচারের অভিযোগে একটি মামলা হয়। 

সেই মামলায় ১৯ জুলাই রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এই মামলায় তাকে মূল ষড়যন্ত্রকারি হিসেবে মনে করা হচ্ছে এবং এই সংক্রান্ত পর্যাপ্ত প্রমাণও পুলিশের হাতে রয়েছে। 

এখন পর্যন্ত ওই মামলায় ৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে মুম্বাই পুলিশ। এক নারী জোর করে পর্নোগ্রাফি ছবিতে অভিনয়ের জন্য বাধ্য করার অভিযোগ এনে এই মামলাটি করেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে পুলিশ একটি চক্রের খোঁজ পায়। সেই সূত্রেই সম্প্রতি গ্রেপ্তার অভিযান শুরু হয়। 

গেলো ২৬ মার্চ এই মামলায় মহারাষ্ট্র সাইবার সেল রাজ কুন্দ্রাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। একইদিনে একতা কাপুরকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। 

এর আগে ভারতীয় মডেল শার্লিন চোপড়া ও পুনম পাণ্ডে সাইবার সেলকে জানান, রাজ কুন্দ্রার হাত ধরেই তারা সফট পর্নোতে আসেন।

শার্লিন জানান, একেকটি পর্নো ছবিতে অভিনয়ের জন্য তিনি ৩০ লাখ রুপি পেতেন এবং রাজের হয়ে এ পর্যন্ত ১৫ থেকে ২০টি প্রজেক্টে কাজ করেছিলেন।

মুম্বাই পুলিশ জানিয়েছে, রাজের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি এবং প্রযুক্তি আইন অনুযায়ী একাধিক মামলা দায়ের হয়েছে। ইতিমধ্যেই অশ্লীল ছবি ও অশালীন বিজ্ঞাপন তৈরি এবং তা দেখানোর অভিযোগ এনে মামলা হয়েছে রাজ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে।


একাত্তর/আরএইচ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন