ঢাকা ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

গর্ভবতী নারীর ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বেড়েছে

ডলার মেহেদী, একাত্তর
প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর ২০২১ ১৩:১৮:৩০ আপডেট: ১৭ অক্টোবর ২০২১ ১৩:২৭:৩৪
গর্ভবতী নারীর ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বেড়েছে

করোনাকালে গর্ভবতী নারীদের ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বেড়েছে। সেই সাথে বেড়েছে মৃত্যুঝুঁকি। গর্ভাবস্থায় এমনিতেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকে। 

তার ওপর গর্ভকালীন ডায়াবেটিসে সেটি আরও কমে যায়। এই অবস্থায় করোনা আক্রান্ত হলে রোগীর ঝুঁকির মাত্রাও বেড়ে যায়। 

মায়ের ডায়াবেটিসের কারণে নবজাতকের টাইপ-টু ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার শঙ্কা থাকে। তাই গর্ভকালীন ডায়াবেটিস আক্রান্তদের নিবিড় চিকিৎসার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। 

ছয় বছরের শিশু রাসেল। থাকে ঢাকার মিরপুরে। জন্মের পরই শিশুটির ডায়াবেটিস ধরা পড়ে। গর্ভাবস্থায় মায়ের কাছ থেকেই শিশুটি আক্রান্ত হয়েছে।

করোনার সময় সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে ডায়াবেটিস আক্রান্ত গর্ভকালীন নারীরা। পরিসংখ্যান বলছে, ২০২০ থেকে ২০২১ সালে এই রোগে আক্রান্তের হার বেশি। 

করোনা থেকে মুক্তির একমাত্র উপায় রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো। কিন্তু ডায়াবেটিক রোগীদের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কমায়। গর্ভকালীন অবস্থায় সেটি আরও কমে যায়।

আরও পড়ুন: দেশে প্রতি আটজন নারীর একজন স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকিতে

যাদের টাইপ-ওয়ান ডায়াবেটিস আছে তাদের গর্ভের সন্তান নষ্ট হয়ে যাওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি। যাদের গর্ভকালীন ডায়াবেটিস আছে পরবর্তী পাঁচ বছরের মধ্যে তাদের অর্ধেকেরও বেশি টাইপ-টু ডায়াবেটিস আক্রান্ত হয়ে থাকেন।

চিকিৎসকরা বলছেন, গর্ভকালীন অবস্থায় মায়ের ডায়াবেটিক থাকলে জন্মের পর শিশুটিরও এই রোগ আক্রান্ত হওয়ার আশংকা ৪০ শতাংশ বেশি থাকে।

করোনাকালীন সময় ডায়াবেটিক থেকে বাঁচতে খাদ্যাভ্যাস ও জীবনাচরণের পরিবর্তন এবং চিকিৎসার কোন বিকল্প নেই বলেই মত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের। 


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন