ঢাকা ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সংঘর্ষে বাধা দেওয়ায় কলেজছাত্রকে হাতুড়িপেটা

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঝালকাঠি
প্রকাশ: ২৫ নভেম্বর ২০২১ ১২:২৯:১০
সংঘর্ষে বাধা দেওয়ায় কলেজছাত্রকে হাতুড়িপেটা

ঝালকাঠির রাজাপুরে দুই গ্রুপ এসএসসি পরীক্ষার্থীর বিবাদে বাধা দেওয়ায় সিফাতুল ইসলাম তামিম (১৮) নামে এক কলেজছাত্রকে তুলে নিয়ে হাতুড়িপেটা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

বুধবার (২৪ নভেম্বর) রাতে উপজেলার সত্যনগর এলাকার একটি স্কুলের কক্ষে দুই ঘণ্টা আটকে রেখে তাকে নির্যাতন করে স্থানীয় অপু মৃধা (৩০) ও তার সহযোগিরা। পরে গুরুতর অবস্থায় তাকে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। 

নির্যাতনকারী অপু মৃধা উপজেলার সদর ইউনিয়নের সত্যনগর এলাকার পুলিশের এএসআই মো. ইদ্রিস মৃধার ছেলে। আহত তামিম বরিশাল পলিটেকনিক ইনিস্টিটিউটের প্রথমবর্ষের ছাত্র ও উপজেলা সদরের বাঘরী এলাকার মো. খলিলুর রহমানের ছেলে।

আহত তামিম জানায়, গত মঙ্গলবার উপজেলার বাইপাস মোড় এলাকায় দুই দল এসএসসি পরীক্ষার্থী একে অপরের সাথে সংঘর্ষের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। বিষয়টি বুঝতে পেরে তামিম দুই পক্ষকে সরিয়ে দেয়। এদের মধ্যে এক পক্ষ ছিল অপু মৃধার সহযোগীরা। 

আরও পড়ুন: সড়কের পাশ থেকে মা-মেয়ের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বুধবার রাতে অপু তাঁর সহযোগীদের নিয়ে দুইটি মোটরসাইকেলে এসে থানার পশ্চিম পাশের খেলার মাঠ থেকে তামিমকে তুলে নিয়ে সত্যনগর এলাকায় একটি বিদ্যালয়ের কক্ষে আটকে টানা দুই ঘন্টা হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে খবর পেয়ে রাতেই বিদ্যালয় থেকে আহত অবস্থায় স্বজনরা তামিমকে উদ্ধার করে। 

অপু মৃধা এলাকায় চিহ্নিত সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত বলে পুলিশ জানিয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে এর আগেও একাধিক নির্যাতনের অভিযোগে মামলা রয়েছে। 

রাজাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পুলক চন্দ্র রায় জানান, আহত যুবকের বাবা রাতে থানায় এসেছিলেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। যদি মামলা নেওয়ার মত হয়, তাহলে মামলা হবে। 


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন