ঢাকা ২২ জানুয়ারী ২০২২, ৮ মাঘ ১৪২৮

কারো দয়ায় নয়, মানুষের মন জয় করেই জিতেছি: ঋতু

রাজিব হাসান, ঝিনাইদহ
প্রকাশ: ২৯ নভেম্বর ২০২১ ১৮:৩৩:১৬ আপডেট: ২৯ নভেম্বর ২০২১ ২০:৫৮:১৮
কারো দয়ায় নয়, মানুষের মন জয় করেই জিতেছি: ঋতু

দেশের প্রথম তৃতীয় লিঙ্গের ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম ঋতু। আনারস প্রতীক নিয়ে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের ত্রিলোচনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তিনি।

ভোটের লড়াইয়ে ঋতু ৯ হাজার ৫৬৯ ভোট পেয়েছেন এবং তার প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী নজরুল ইসলাম সানা পেয়েছেন ৪ হাজার ৫১৭ ভোট।

জয়ী হওয়ার পর ঋতু জানান, কোন দয়া বা বিশেষ দৃষ্টিভঙ্গি নয়, মানুষ হিসাবে তিনি এলাকার মানুষের মন জয় করেছেন। 

ইউনিয়ন পরিষদের তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে আনারস প্রতীকে লড়েন ঋতু। প্রথম থেকেই নানা বাধা ছিল। তাঁর পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়েছিলো। বাধা দেয়া হয়েছে তার প্রচারে।

শেষমেশ জিতেই গেলেন ঋতু। নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর তিনি জানালেন, মানুষের কল্যাণে নিজেকে উৎসর্গ করবেন।  কারণ এই জয় ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নবাসীর। 

ঋতু আরো বলেন, সমাজের একজন অবহেলিত মানুষ হয়েও এলাকার মানুষ আমাকে ভালবেসে ভোট দিয়ে বিজয়ী করেছেন। এজন্য আমি এলাকাবাসীর কাছে কৃতজ্ঞ। অবহেলিত এলাকার উন্নয়নে জীবন বাজি রেখেই কাজ করব। মানুষের কল্যাণে নিজেকে উৎসর্গ করব।

আরও পড়ুন: ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নে জয়ী তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থী ঋতু

উপজেলার ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের দাদপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদেরের সন্তান ঋতু। জন্মের পর তৃতীয় লিঙ্গের একজন হওয়ার কারণে পাঁচ বছর বয়সে ঢাকাতে চলে যান। 

সামান্য লেখাপড়া করলেও বাধায় প্রাথমিকের গণ্ডি পার হতে পারেননি। ছোটবেলা থেকে ঢাকার ডেমরা থানাতে তৃতীয় লিঙ্গের একটি দলের গুরু মার কাছেই বেড়ে ওঠেন ঋতু। 

তিনি বলেন, এখন আমার বয়স ৪৩ বছর। গুরু মার পরের দায়িত্বটা এখন আমার কাঁধে। তবে ঢাকাতে থাকলেও পরিবারের টানে প্রায়ই বাড়িতে আসি।

আর এলাকাবাসী বলছেন, ঋতু দীর্ঘ দিন থেকে মানুষের প্রচলিত ঘৃণাকে উপেক্ষা করে এলাকার মানুষ ও সামাজিক উন্নয়নে কাজ করতেন। এক সময় তারা তাকে মানুষ হিসাবে বিবেচনায় এনেছে। মানুষের মন জয় করার কৃতিত্ব একেবারেই তার।


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন