ঢাকা ২২ জানুয়ারী ২০২২, ৮ মাঘ ১৪২৮

পরীক্ষা হলে এক হাতে অশ্রু মুছে অন্য হাতে লিখলেন মেরাজ

নিজস্ব প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম
প্রকাশ: ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ১৮:০০:৫৭ আপডেট: ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ২৩:২১:৪৭
পরীক্ষা হলে এক হাতে অশ্রু মুছে অন্য হাতে লিখলেন মেরাজ

বাড়ির আঙ্গিনায় বাবার লাশ রেখে চোখে অশ্রু নিয়ে এইচএসসি পরীক্ষা হলে পরীক্ষা দিতে বসেছে মেরাজ হক নামে এক শিক্ষার্থী। বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার সাইফুর রহমান সরকারি কলেজ পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন মেরাজ। 

অশ্রুসিক্ত মেরাজ বলেন, বাবার দোয়া নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল পরীক্ষার কেন্দ্রে। সেটি না হয়ে বাবার লাশ রেখে যেতে হয়েছে পরীক্ষা কেন্দ্রে। 

মেরাজের বাবা শরিফুল হক মিল্টন (৪৭) বুধবার (১ ডিসেম্বর) মধ্যরাতে নিজ বাড়িতে হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যুবরণ করেছেন । 

মেরাজের চোখে জল দেখে অনেকেই প্রশ্ন করছেন কাঁদছে কেন! নিজে উত্তর না দিলেও কিছুক্ষণের মধ্যে ছড়িয়ে যায় তার বাবা মারা যাবার খবর। সহপাঠীরা দিয়েছেন স্বান্তনা। কেন্দ্রের ৩ নং কক্ষ বসে পরীক্ষা দিইয়েছেন মেরাজ। 

ফুলবাড়ী ডিগ্রী কলেজ থেকে কারিগরি শাখায় এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেছেন মেরাজ। তার বাড়ি উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের হকটারী এলাকায়। 

সহপাঠী রবিউল ইসলাম  জানান, মেরাজ হক পরীক্ষা দিতে গিয়ে বাবার শোকে পুরো সময়ই কেঁদেছে আর লিখেছে খাতায়। আর এ দৃশ্য দেখে তাঁর সহপাঠী, শিক্ষকসহ সবাই শোকাতুর হয়ে পড়েন।

সাইফুর রহমান সরকারি  কলেজর অধ্যক্ষ ও পরীক্ষা কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব মো.রফিকুল ইসলাম  জানান, পরীক্ষার্থী মেরাজ হকের  বাবার মৃত্যুর বিষয়টি আমরা শুনেছি। আমরা তাকে সান্তনা ও উৎসাহ দিয়েছি পরীক্ষা দিতে। তবে তার জন্য কোনো বিশেষ ব্যবস্থায় পরীক্ষা নেওয়া হয়নি। সে সবার সঙ্গে স্বাভাবিকভাবেই পরীক্ষা দিয়েছে। 

জানা গেছে, আড়াইটার দিকে মেরাজের পিতা মিল্টনের মরদেহ পারিবারিকভাবে দাফন করা হয়েছে।


একাত্তর/জো

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন