ঢাকা ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯

নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের দফা নিয়ে বিভক্ত শিক্ষার্থীরা

ইশতিয়াক ইমন, একাত্তর
প্রকাশ: ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ২০:২৭:২৪ আপডেট: ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ২০:২৭:৩৭
নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের দফা নিয়ে বিভক্ত শিক্ষার্থীরা

চলমান নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের ৯ এবং ১১ দফা নিয়ে বিভক্ত হয়ে পড়েছে শিক্ষার্থীরা। এই আন্দোলনের নেতৃত্বে আছেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সোহাগী সামিয়া। এই বিভক্তির কারণে শাহবাগ ও রামপুরায় আলাদা কর্মসূচি দিয়েছে শিক্ষার্থীদের দুই পক্ষ। 

নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের পঞ্চম দিনে এসে বিভক্ত হয়ে পড়েছে শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনে কমেছে সাধারণ শিক্ষার্থীর সংখ্যাও।

শনিবার বেলা ১২টার দিকে রামপুরা ব্রিজে দশ থেকে ১২ জন নয় ৯ দাবিতে মানববন্ধন করে। এ সময় তারা রোববার শাহবাগে আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করে।

এর দশ মিনিট পরে সেখানে হাজির হয় আন্দোলন করা আরেক পক্ষ। তারা সড়কে দুর্নীতি নৈরাজ্য ও বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে লাল কার্ড দেখিয়ে কর্মসূচি ঘোষণা করে। 

কর্মসূচি ঘোষণা করা সোহাগী সামিয়া খিলগাঁও মডেল কলেজের এইচএসসি পরিক্ষার্থী। গেলো চার বছর ধরে তিনি সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের ঢাকা মহানগরের দায়িত্বশীল একটি পদে আছেন। 

সোহাগী সামিয়া বলেন, ‘আমি বুক ফুলিয়ে বলি, আমি ২০১৭ সাল থেকে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সঙ্গে যুক্ত। বর্তমানে আমি এই সংগঠনের ঢাকা নগর কমিটির দপ্তর সম্পাদক’।

তিনি দাবি করেন, আন্দোলনের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত তার কোনো বক্তব্য ও কর্মসূচিতে তিনি কোনো রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক ইস্যু টেনে আনেনি।

নিরাপদ সড়কের আন্দোলন একটি যৌক্তিক আন্দোলন দাবি করে তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক কোন স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্য আমার নেই’।

এদিকে শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনে রাজনৈতিক দলের কর্মী সামিয়ার নেতৃত্ব মানতে নারাজ আন্দোলনকারী সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এতে করে তাদের আন্দোলন নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে।

আন্দোলনে বিভক্তির পাশাপাশি ৯ দফা ও ১১ দফা নিয়েও দুই পক্ষের মধ্যে দেখা দিয়েছে মতবিরোধ। আর দুই পক্ষের এই বিভক্তিতে দ্বিধাায় পেড়েছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

সড়কে মৃত্যুর প্রতিবাদে রোববার সড়ক অবরোধ না করে, রামপুরা ব্রিজে ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শন করার ঘোষণা দিয়েছে শিক্ষার্থীরা।



একাত্তর/এআর

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

২ দিন ১ ঘন্টা আগে