ঢাকা ২২ জানুয়ারী ২০২২, ৮ মাঘ ১৪২৮

মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে দলবেধে ধর্ষণ, আটক দুই

নিজস্ব প্রতিনিধি, শেরপুর
প্রকাশ: ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ১১:৫৭:৪৪ আপডেট: ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ১২:১৯:১৯
মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে দলবেধে ধর্ষণ, আটক দুই

শেরপুর সদরে এক মানসিক ভারসাম্যহীন (পাগলী) নারীকে দলবেঁধে ধর্ষণের অভি‌যোগে দুইজনকে আটক করেছে স্থানীয়রা। পরে তাদের গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

রোববার (৫ ডিসেম্বর) রাত ১১টার দি‌কে উপ‌জেলার মোকসেদপুর খোলা মাঠে এ ঘটনা ঘ‌টে।

আটককৃতরা হলেন: চরমুচারিয়া ইউনিয়নের মাছপাড়ার দুলাল মিয়ার ছেলে হকার ফকির ও পাকুড়িয়া ইউনিয়নের বরাটিয়ার ফেকা মিয়ার ছেলে আচার বিক্রেতা হামেদ।

এ ঘটনায় জড়িত আরো দুইজন নন্দীর পাড়ার জুয়েল ফকির ও পুরান পাড়ার আলম পালিয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

এলাকাবাসী জানায়, গত কয়েকদিন ধরে অজ্ঞাত এক মানষিক ভারসাম্যহীন (পাগলী) নারী শেরপুর সদর উপজেলার মোকসেদপুর নন্দীর বাজারে ঘোরাফেরা করে আসছিল। রোববার রাত ১১টার সময় ওই পাগলীকে জোরপূর্বক ধরে মোকসেদপুর খোলা মাঠে নিয়ে ফকির, আলম, জুয়েল ফকির ও হামেদ ধর্ষণ করে।

এসময় পাগলীর ডাক চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে ফকির ও হামেদকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। বাকি দুইজন পালিয়ে যায়।

স্থানীয় আব্দুল মজিদ ব‌লেন, আমরা এমন ন্যক্কারজনক ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। পাশেই থাকা রেজাউল ড্রাইভার ব‌লেন, এসব বখাটের কারণে এখানে পাগলীরাও শান্তিতে থাকতে পারে না। তাদের কঠোর বিচার হওয়া দরকার।

আরও পড়ুন: কক্সবাজারে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ডাকাত নিহত

শেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মো. বন্দে আলী মিয়া ব‌লেন, এ ঘটনার ভিকটিম অজ্ঞাত মানসিক ভারসাম্যহীন। সে কোন কথাই বলতে পারছে না। তাই ঘটনাটি কতদূর ঘটেছে তা বুঝা যাচ্ছেনা। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


একাত্তর/আরএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন