ঢাকা ২২ মে ২০২২, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

রাজনৈতিক দল নয়, দানবে পরিণত হয়েছে আওয়ামী লীগ: ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক, একাত্তর
প্রকাশ: ১২ ডিসেম্বর ২০২১ ১৬:২০:৫৩ আপডেট: ১২ ডিসেম্বর ২০২১ ২১:১৭:০৪
রাজনৈতিক দল নয়, দানবে পরিণত হয়েছে আওয়ামী লীগ: ফখরুল

ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ এখন আর রাজনৈতিক দল নয়, দানবে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রোববার (১২ ডিসেম্বর) দুপুরে কৃষক দল আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

ফখরুল বলেন, সত্যিকার অর্থে আওয়ামী লীগ কিন্তু দেশ চালায় না। দেশ চালায় কিছু সংখ্যক আমলা। গণতন্ত্রের বাইরে তারা আজ দেশ পরিচালনা করছে। কী অবস্থা করেছে বাংলাদেশের! গতকাল আপনারা দেখেছেন, আমাদের একটি প্রতিষ্ঠান র‌্যাবকে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হচ্ছে এবং তাদের যে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা তাদেরও অগ্রহণযোগ্য বলা হয়েছে। এটা কিন্তু দেশের জন্য অনেক লজ্জার কথা। আমার প্রায় ৭৪ বছর বয়স। আমি তো কোনো দিন শুনিনি আমাদের কোনো প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আমাদের কোনো কর্মকর্তার ওপরে এই ধরনের কলঙ্কজনক সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে। আজকে আওয়ামী লীগ এই অবস্থাটা তৈরি করেছে।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের প্রতিষ্ঠান, যাদের নিয়ে আমাদের গর্ব করা উচিত সেগুলো তারা ধ্বংস করে দিয়ে শুধুমাত্র তাদের ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করার জন্য ৬০০ লোককে গুম করেছে। পত্রিকাতেই এসেছে। হাজার খানেক লোককে হত্যা করা হয়েছে। এক্সট্রা জুডিশিয়াল কিলিং করা হয়েছে। পঙ্গু আছে হাজার হাজার। মেজর সিনহাকে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক গুলি করে মারলো। এটা কোনো সভ্য দেশে সম্ভব! প্রতিদিন খবরের কাগজগুলো দেখবেন এ ধরনের খবর আছে। কারণ এই সরকার, যারা ক্ষমতা জোর করে দখল করে আছে, তাদের ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করার জন্য এই প্রতিষ্ঠানগুলোকে ব্যবহার করেছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ৭৪ এ দুর্ভিক্ষের পর অল্প সময়ে কৃষকদের সমৃদ্ধ করতে পেরেছিলেন জিয়াউর রহমান। দ্রুত সময়ে ব্যতিক্রমী উপায়ে দেশকে স্বনির্ভরতার দিকে নিয়ে গিয়েছিলেন জিয়া, কৃষকদের জন্য ন্যায্য মুল্য নিশ্চিত করেছিলেন তিনি। 

'আজ একটা ভয়াবহ সংকটে আছে সমগ্র জাতি, সমস্ত অর্জন ধ্বংস করে দিয়েছে এই সরকার, সাংবিধানিক সমস্ত অধিকার ধ্বংস করেছে আওয়ামীলীগ।'
আরও পড়ুন: কোথায় ডা. মুরাদ, ধোঁয়াশা কাটেনি

২০১৮ সালের নির্বাচনে যখন তারা রাতের অন্ধকারে আগের রাতেই সব নিয়ে চলে গেল। তারপর আওয়ামী লীগের এমপি যারা নির্বাচিত হলো, তারা খোলামেলাই বললো। ভাই তোমাদের তো ক্ষমতায় এনেছি আমরা। তোমরা কেন কথা বলবে! চুপচাপ থাক, আমরা দেশ চালাবো। একজন কর্মকর্তা তো বলেই ফেললো মাছের রাজা ইলিশ আর দেশের রাজা পুলিশ। আমরা এমন একটা বর্বর দেশে পরিণত হয়েছি, এখন আমাদের রাষ্ট্রের উপরের দিকে আছে, যাদের ওপর রাষ্ট্র নির্ভর করে তাদের আজ বিভিন্ন রাষ্ট্র গ্রহণ করতে রাজি হচ্ছে না, বলেন ফখরুল।

তিনি আরও বলেন, লজ্জা হয় যখন দেখি এই সরকারের একজন সাবেক প্রতিমন্ত্রী কী ভাষায় কথা বলে! এটাই আওয়ামী লীগের আসল চেহারা। চায়ের দোকানে বসলে কী করে বুঝবেন কে আওয়ামী লীগ আর কে বিএনপি? যে লোকটা সবচেয়ে জোরে এবং অশ্লীল কথা বলছে ওই লোকটাই আওয়ামী লীগ। এই অবস্থা থেকে মুক্ত হতে হবে। জনগণকে রাস্তায় নামিয়ে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। এই সরকারকে পরাজিত করতে হবে। খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে।



একাত্তর/এসএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন