ঢাকা ২৯ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

সারের দাম বাড়ায় দিশেহারা রংপুরের আলু চাষিরা

শাহ বায়েজিদ আহমেদ, রংপুর
প্রকাশ: ১২ ডিসেম্বর ২০২১ ১৯:৩৬:২৫ আপডেট: ১২ ডিসেম্বর ২০২১ ১৯:৩৮:৪২
সারের দাম বাড়ায় দিশেহারা রংপুরের আলু চাষিরা

চলতি আলু মৌসুমে সার ও কীটনাশকের সংকটে দিশেহারা রংপুর অঞ্চলের কৃষকরা। আলু উৎপাদনে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম এলাকায় গতবছরের লোকসানের বোঝা সামলাতে এবার আশায় বুক বেধেছিলো আলু চাষিরা। সার কীটনাশকের দাম কমিয়ে উৎপাদিত আলুর দাম বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে কৃষকরা। কৃষক নেতারা বলছেন, সার ডিজেলসহ কৃষি উপকরণে সরকারিভাবে ভর্তুকি দেয়া দরকার। আর কৃষি বিভাগ বলছেন, এরই মধ্যে রংপুরের প্রায় ৩০ ভাগ জমিতে আলু রোপন করা হয়েছে।

নভেম্বরের শেষ আর ডিসেম্বরের শুরুতে আলু রোপনে ব্যস্ত সময় পার করছেন রংপুর অঞ্চলের কৃষকরা। গতবারের লোকসানের বোঝা মাথায় নিয়ে এবারও আলু চাষ শুরু করেছেন চাষিরা। কিন্তু আলুর অন্যতম 'টিএসপি' সার বস্তা প্রতি ৩০০ টাকা দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় হতাশ চাষিরা।

কৃষকেরা বলছেন, প্রতিকূলের মধ্যেও এরই মধ্যে রংপুরের প্রায় ২৭ ভাগ জমিতে আলু রোপণ করেছেন তারা। কিন্তু বেশি দামে সার কিনলে বেড়ে যাবে উৎপাদন খরচ। আবার কম সার দিলেও পাওয়া যাবে না কাঙ্ক্ষিত ফলন।

তারা আরো জানান, গেলো বছরের তুলনায় এবার আলু উৎপাদনে বিঘা প্রতি খরচ বাড়বে ১০ থেকে ১২ হাজার টাকা। বাজারে এখন ৮০০ টাকার টিএসপি সার এখন ১,১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তাই উৎপাদিত আলুর ন্যায্য মূল্য ঠিক করার দাবিও জানান তারা।।

রংপুর জেলা কৃষক সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক অ্যাডভোকেট পশাল কান্তি নাগ চলতি মৌসুমে সরকারি উদ্যোগে আলু চাষিদের সুলভ মূল্যে সার, ডিজেল, কীটনাশক সরবরাহ এবং সহজ শর্তে বিনা সুদে কৃষি ঋণ প্রদানে দাবি জানিয়েছেন।

আর রংপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক রিয়াজ উদ্দিন বলেন, রংপুরে এবার ৫৩ হাজার ৫২৫ হেক্টর জমিতে ১৩ লাখ ৩৩ হাজার ৩৯৫ মেট্রিক টন আলু উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করা হয়েছে। রংপুর জেলার প্রায় ২৭ ভাগ জমিতে আলু রোপ করা হয়েছে। বাকি জমিগুলোতে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে আলু রোপণ শেষ হবে বলেও জানান তিনি।

একাত্তর/ এনএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন