ঢাকা ২২ মে ২০২২, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

কে হবেন পরবর্তী জেমস বন্ড?

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ২৫ ডিসেম্বর ২০২১ ১২:৩১:৩১ আপডেট: ২৫ ডিসেম্বর ২০২১ ১৩:০৫:৩০
কে হবেন পরবর্তী জেমস বন্ড?

১৬ বছরে পাঁচটি চলচ্চিত্রের পর 'নো টাইম টু ডাই'-এর মাধ্যমে এবছর নিজের জেমস বন্ড ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছেন ড্যানিয়েল ক্রেগ। 

তবে তিনি চলে গেলেও ফ্র্যাঞ্চাইজি তো আর থেমে থাকবে না। কে হচ্ছেন পরবর্তী বন্ড, তা নিয়ে ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে নানা জল্পনাকল্পনা। 

মাল্টি বিলিয়ন ডলারের জেমস বন্ড ফ্র্যাঞ্চাইজির জন্য নতুন মুখ কে হবেন তা ঠিক করা যে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি সিদ্ধান্ত সে ব্যাপারে কোনো সন্দেহ নেই। তাকে একইসাথে হতে হবে একজন মুভিস্টার, সিরিজের একজন মুখপাত্র, একজন মিডিয়া ডিপ্লোম্যাট এবং ব্রিটিশ সংস্কৃতির একজন যথার্থ কর্ণধার। এছাড়া সুদর্শন এবং ক্যারিজমাটিক হওয়ার কথা তো না বললেও চলে।

এতো এতো সব মানদণ্ডের সাথে পাল্লা দিয়ে চলার মতো কে আছেন সিনেমাজগতে? ভক্ত এবং সিনেমাবোদ্ধারা কিন্তু এরইমধ্যে দাঁড় করিয়ে ফেলেছেন বেশ লম্বা একটা তালিকা, কে হতে পারেন সিরিজের পরবর্তী কাণ্ডারি। চলুন পরিচিত হওয়া যাক তাদের মধ্যে সবচেয়ে আলোচিত নামগুলোর সাথে। 

টম হার্ডি 

সময় হয়েছে একজন নারী বন্ডকে পর্দায় আনার, এমন দাবি মাঝেই মাঝেই উঠলেও সে সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন প্রযোজক বারবারা ব্রকোলি। তিনি জানিয়েছেন, পরবর্তী বন্ড যে পুরুষই হবেন তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। 

'একজন পুরুষ চরিত্রে নারীকে দিয়ে অভিনয় করানোর কোনো ইচ্ছে আমার নেই। নারী চরিত্ররা এর চাইতে অনেক বেশি আকর্ষণীয়', বলেন তিনি। 


তবে মাসক্যুলিনিটির দিক থেকে চিন্তা করলে অনেকেরই পছন্দের শীর্ষে রয়েছেন টম হার্ডি। ভেনোম, ডানকার্ক এবং ম্যাড ম্যাক্সের মতো চলচ্চিত্রে তার চরিত্রায়ন দেখে তাকে বন্ডের চরিত্রে কল্পনা করা মোটেও কঠিন নয়। 

আরও পড়ুন: ২০২১ সাল: বাংলা সিনেমার ঘুরে দাঁড়ানোর বছর

তবে এক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে তার বয়স। ড্যানিয়েল ক্রেগ বন্ড চরিত্রে অভিনয় করেছেন টানা ১৫ বছর। ৪৪ বছর বয়সী টম এতো লম্বা সময় ধরে এই চরিত্রে থাকতে পারবেন কিনা সেটি একটি বড় প্রশ্ন। 


একই সমস্যা দাঁড়িয়েছে ইদ্রিস এলবার ক্ষেত্রেও। এক দশকেরও বেশি সময় ধরে বন্ড চরিত্রের পছন্দের তালিকায় শীর্ষে থাকার পরও, ৪৯ বছর বয়সী এলবাকে এখন বলতে গেলে খারিজই করে দিতে হচ্ছে। তিনি নিজেও জানিয়েছেন একই কথা। 

র‍্যাগে-জিন পেজ 

বয়সের দিক থেকে বিবেচনা করলে তালিকায় ওপরের দিকে আছে র‍্যাগে-জিন পেজের নাম। নেটফ্লিক্সের ব্রিজারটন সিরিজ দিয়ে লাইমলাইটে আসা পেজ নিজেও বন্ডের চরিত্রে অভিনয় করা নিয়ে ব্যাপক আশাবাদী।

আরও পড়ুন: ছাত্রীদের সঙ্গে যৌন সম্পর্কের কথা স্বীকার করলেন জেমস

ব্রিটিশ হিসেবে পর্দায় যেকোনো ভালো কাজ করলেই বন্ড তালিকায় নাম চলে আসে, ঠাট্টার ছলে বলেছেন তিনি। তবে এ নিয়ে যে তিনি বেশ গর্বিত, তাও বেশ বোঝা যায় তার কথায়।


যতবারই টাক্সিডো স্যুট পরে লালগালিচায় হেঁটেছেন, ততবারই পেজকে বন্ড চরিত্রের জন্য আদর্শ বলে মনে হয়েছে। আরেক বন্ড পিয়ের্স ব্রসনানও বলেছেন একই কথা। 

রিচার্ড ম্যাডেন 

গেম অফ থ্রোন্স তারকা রিচার্ড ম্যাডেনও আছেন সম্ভাব্য বন্ডের তালিকায়। বডিগার্ড সিনেমায় অভিনয়ের পরই এ তালিকায় তার নাম চলে আসে। গেম অফ থ্রোন্সে লর্ডের ভূমিকায় অভিনয় করলেও, স্যুট পরে বন্দুক হাতে অ্যাকশন সিনেও এই স্কটিশ তারকা মানিয়ে গেছেন বেশ।


আর প্রথম জেমস বন্ড খোদ শন কনেরিও যে স্কটিশ ছিলেন, তা ভুলে গেলে চলবে কি করে! 

টম হপার

তালিকায় আরেক স্কটিশ নাম টম হপার। বন্ড রেসের কালো ঘোড়া বলা যায় তাকে। টম হার্ডি বা ইদ্রিস এলবার মতো অতটা পরিচিত না হলেও, এই গেম অফ থ্রোন্স তারকাও দৌড়ে বেশ এগিয়েই আছেন। অক্টোবরে তো এই গুঞ্জনও উঠেছিল, প্রযোজকের সেরা তিনের তালিকায় আছে তার নাম। 


এখনও সেই সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। শেষ পর্যন্ত তিনিই নির্বাচিত হলে যে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না, তাও জানিয়েছেন অনেক সিনেমাবোদ্ধা। 

তালিকাটা এখানেই শেষ নয়। সম্ভাব্য বন্ডের তালিকায় প্রতিনিয়তই নতুন নতুন নাম যুক্ত হয়, আবার তা উবেও যায় সহসাই। ঘুরে ফিরে প্রায়ই হেনরি ক্যাভিল, জেমি ডরনান, ক্লাইভ স্ট্যান্ডেন বা হেনরি গোল্ডিংয়ের নাম শোনা যায়। তবে শেষ পর্যন্ত যেই নির্বাচিত হন না কেন, ধারণা করা হচ্ছে পরবর্তী বন্ড এমন কেউই হবেন যাকে চেনেন সবাই, অথচ কেউ ভাবেননি তাকে এই চরিত্রে দেখার কথা! 


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন