ঢাকা ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯

বুস্টার ডোজে কেন্দ্র পরিবর্তনের সুযোগ, তবে…

নিজস্ব প্রতিবেদক, একাত্তর
প্রকাশ: ০৫ জানুয়ারী ২০২২ ২০:০২:৪৭
বুস্টার ডোজে কেন্দ্র পরিবর্তনের সুযোগ, তবে…

দেশজুড়ে চলছে করোনা টিকার তৃতীয় বা বুস্টার ডোজ দেয়ার কর্মসূচি। এক্ষেত্রে স্বাভাবিকভাবে এগিয়ে আছে রাজধানী। নগরীর সব টিকা কেন্দ্রেই বুস্টার ডোজ দেয়া হচ্ছে। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানিয়েছেন, দুই ডোজ টিকা নেয়ার পর কর্মস্থল বা আবাসস্থলের জেলা বদলে যাওয়ায় যারা বুস্টার ডোজ নিতে সমস্যায় পড়েছেন, তাদের টিকা কেন্দ্র পরিবর্তনের সুযোগ দেয়া হবে।

বুধবার, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে এক অনুষ্ঠান শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, অনেকেই দুই ডোজ যে এলাকা থেকে নিয়েছেন, এখন ওই এলাকায় থাকেন না। 

এর ফলে বুস্টার ডোজ নেয়ার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে তাদেরকে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বিষয়টি সমাধানের উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানান তিনি। 

সেব্রিনা ব্যাখ্যা করে বলেন, কোনো ব্যক্তি যদি দুই ডোজ টিকা নিয়ে থাকেন, তাহলে তিনি যেখানে থাকেন সেখান থেকেই বুস্টার ডোজটা নিয়ে নিতে পারেন। 

কিন্তু তিনি যে কেন্দ্রের নামে রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন সেই কেন্দ্র থেকে এসএমএস পেতে হবে। এটি পেলে তখন তিনি টিকা কেন্দ্রে গেলে টিকাটি পাবেন। 

এক্ষেত্রে এক জেলার থেকে অন্য জেলার মধ্যে এটা করা সম্ভব হবে। কিন্তু রাজধানী ঢাকার মধ্যে কেন্দ্র পরিবর্তন করা যাবে না বলেও মনে করিয়ে দেন এই কর্মকর্তা। 

বর্তমানে ষাট বছরের বেশি বয়সী যারা এবং মহামারী প্রতিরোধে সম্মুখসারীর কর্মীরা করোনা টিকার তৃতীয় বা বুস্টার ডোজ পাচ্ছেন। সেজন্য নতুন করে নিবন্ধনের প্রয়োজন হচ্ছে না। 

যে হাসপাতালে আগের দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন, সেখান থেকে এসএমএস পেলে নির্ধারিত তারিখে সেখান থেকেই টিকা নিতে পারছেন।

গত ২৮ ডিসেম্বর দেশে তৃতীয় বা বুস্টার ডোজ দেয়া শুরু হয়। বুধবার পর্যন্ত ২ লাখ ৭ হাজারের বেশি মানুষকে এই ডোজ দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: এখনই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা চান স্বাস্থ্যের কর্মকর্তারা

আর, মঙ্গলবার পর্যন্ত দেশে টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৭ কোটি ৫৭ লাখ ৮৯ হাজারের বেশি মানুষ। তাদের মধ্যে ৫ কোটি ৩৫ লাখ ৮২ হাজারের বেশি মানুষ দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন।

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

৪ দিন ১৪ ঘন্টা আগে