ঢাকা ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

কারাগার থেকে ফাঁসির আসামির নির্বাচনী প্রচারণা!

নিজস্ব প্রতিনিধি, গাজীপুর
প্রকাশ: ০৮ জানুয়ারী ২০২২ ১৮:৩০:০২ আপডেট: ০৮ জানুয়ারী ২০২২ ১৮:৩২:৪৬
কারাগার থেকে ফাঁসির আসামির নির্বাচনী প্রচারণা!

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর কনডেম সেলে বসে মোবাইল ফোনে নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে এসেছে নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সাত খুন মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি নূর হোসেনের বিরুদ্ধে। 

কনডেম সেল থেকে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর নির্বাচনে ভাই ও ভাতিজার পক্ষে মোবাইল ফোনে নির্বাচনী তৎপরতা চালাচ্ছেন নূর হোসেন, এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ৫ জানুয়ারি কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর কনডেম সেল থেকে তার ব্যবহৃত একটি মোবাইল ফোন জব্দ করেছে কারা কর্তৃপক্ষ। 

এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির প্রধান কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর উপ তত্ত্বাবধায়ক ও জেলার উম্মে সালমা, সদস্য সচিব ডেপুটি জেলার নুরুল মবিন ও সদস্য প্রধান কারারক্ষী মো. আসাদুজ্জামান। এই তদন্ত কমিটিকে ১১ জানুয়ারির মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২-এর জেল সুপার আবদুল জলিল জানান, এই কারাগারের কনডেম সেলে নূর হোসেনসহ তিনজন বন্দী আছেন। নূর হোসেন নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সাত খুন মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ও সেখানকার সাবেক কাউন্সিলর। 

আরও পড়ুন: ৯৯৯ কলে উদ্ধার হলো কুমির

নূর হোসেন কনডেম সেলে বসে গোপনে মোবাইল ফোন ব্যবহার করছেন, গোপন সূত্রে এই তথ্য জানার পর গত ৫ জানুয়ারি সেখানে অভিযান চালায় কারা কর্তৃপক্ষ। 

এসময় ওই কনডেম সেল থেকে একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। কারাগারে মোবাইল ফোন ব্যবহারের অপরাধে তার বিরুদ্ধে কারাবিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ।।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের এপ্রিলে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের ফতুল্লার লামাপাড়া এলাকা থেকে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলামসহ সাতজনকে অপহরণের ঘটনা ঘটে। 

এর তিনদিন পর তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনায় নজরুল ইসলামের স্ত্রী সেলিনা ইসলাম বাদি হয়ে ফতুল্লা থানায় একটি এবং সিনিয়র আইনজীবী চন্দন সরকার ও তার গাড়িচালক ইব্রাহিম হত্যার ঘটনায় জামাতা বিজয় কুমার পাল বাদি হয়ে আরেকটি মামলা করেন।

এ মামলার ফাঁসির দণ্ড নিয়ে এখন নূর হোসেন কারাগারে রয়েছেন। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র ও চাঁদাবাজিসহ নানা অভিযোগে আরও মামলা বিচারাধীন।


একাত্তর/এসজে 

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন