ঢাকা ২২ জানুয়ারী ২০২২, ৮ মাঘ ১৪২৮

মানহীন রেফারিং ফুটবল উন্নতির বিষফোঁড়া

অর্ণব বাপি, একাত্তর
প্রকাশ: ১২ জানুয়ারী ২০২২ ২০:৩৬:২৭ আপডেট: ১৩ জানুয়ারী ২০২২ ১৬:৫৪:১৪
মানহীন রেফারিং ফুটবল উন্নতির বিষফোঁড়া

ঘরোয়া ফুটবলে মানহীন রেফারিং হয়ে উঠেছে ফুটবলের উন্নতির বিষফোঁড়া। ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহামেডান স্পোর্টিং  ক্লাবের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এবার জানালেন সৌহার্দ্যপূর্ণ প্রতিবাদ। বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দীন দিয়েছেন আশ্বাস। 

ডাক শুনে যদি কেউ না আসে তবে নাকি একলাই চলতে হয়! মৌসুমের দ্বিতীয় টুর্নামেন্ট ফেডারেশন কাপ ফুটবলের শুরুটা একলা চলো রে নীতিতে। ফুটবলারদের স্বার্থে আগেই নাম প্রত্যাহার করে বসুন্ধরা কিংস, মুক্তিযোদ্ধা আর উত্তর বারিধারা। তবে যারা খেলেছে তাদের জন্য আদৌ কি ছিল লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড?

মাঠের খেলায় একের পর এক বিতর্কিত সিদ্ধান্ত দিয়ে ফেডারেশন কাপকেই প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন রেফারিরা। রীতিমতো সংবাদ সম্মেলন করে এর প্রতিবাদ জানায় সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব।

সেই ধারবাহিকতায় এবার একই দরজায় টোকা দিয়েছেন মোহামেডানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সৌহার্দ্যপূর্ণ আলোচনায় বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনকে জানিয়েছেন নানা অসঙ্গতির কথা।

৬ই জানুয়ারি মোহামেডান-রহমতগঞ্জের সেমিফাইনালে রেফারির আচরণে সন্দেহ জাগে সেদিন মাঠে উপস্থিত সবার মনে। এক শূণ্য গোলে এগিয়ে থাকা ম্যাচের ৬৭ মিনিটে মোহামেডানের মেসিডোনিয়ান ফুটবলার জেসমিনকে লাল কার্ড দেখানোটা রেফারির ভুল নাকি ইচ্ছাকৃত ভুল। 

দশ জনের দলে পরিণত হয়ে ভেস্তে যায় ১২ বছর পর সাদাকালোদের ফেডারেশন কাপে খেলার স্বপ্ন। কোটি টাকা খরচ করে দল গড়েও বাজে রেফারিংয়ের শিকার হওয়া ক্লাবগুলো কি পাবে কোনো প্রতিকার? 

দেশের ফুটবলের গৌরব আর ঐতিহ্যের সাথে জড়িয়ে আছে মোহামেডানের নাম। ক্লাবটির বর্তমান কমিটি চেষ্টা চালাচ্ছে হারানো গৌরব ফিরিয়ে আনার। মানহীন রেফারিং যেন বাধা না হয়ে দাঁড়ায় দেশের ফুটবলে তাই জোরালো দাবি পেশাদার লিগে বিদেশ থেকে যেন রেফারি আনা হয়।



একাত্তর/এনএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন