ঢাকা ২৯ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

অপরাধমূলক কাজের জন্য তালেবান থেকে বরখাস্ত তিন হাজার

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ১৬ জানুয়ারী ২০২২ ১২:০৬:৫২
অপরাধমূলক কাজের জন্য তালেবান থেকে বরখাস্ত তিন হাজার

২০২১ সালে আফগানিস্তানের ক্ষমতায় বসে দেশটির বিতর্কিত তালেবান গোষ্ঠী। ক্ষমতায় আসার পর থেকেই সংগঠনের সদস্যদের কর্মকাণ্ডের ওপর নজর রাখছিলেন শীর্ষ তালেবান নেতারা। তারই ধারাবাহিকতায় নানা 'অপরাধমূলক কাজের' সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় সংগঠনটির প্রায় তিন হাজার সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে। 

আন্তর্জাতিক আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা এএফপি বলছে, শনিবার (১৫ জানুয়ারি) তালেবান সরকারের এক কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্যানেলের প্রধান লতিফুল্লাহ হাকিমি জানান, ওই সদস্যরা ইসলামের নামে অন্যায় করেছে। তাই দলের মূল্যায়ন শেষে তাদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে, যাতে ভবিষ্যতে আফগানিস্থান একটি পরিচ্ছন্ন সেনা ও পুলিশ বাহিনী গড়ে তুলতে পারি।

এখন পর্যন্ত প্রায় দুই হাজার ৮৪০ সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন তিনি।

হাকিমি আরও জানান, বরখাস্ত হওয়া সদস্যদের অধিকাংশই দুর্নীতি, মাদক ও মানুষের ব্যক্তিগত জীবনের হস্তক্ষেপের মতো অপরাধের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। এছাড়া জঙ্গি সংগঠন দায়েশের সঙ্গেও জড়িত ছিলো অনেকে। দেশটির ১৪টি প্রদেশ থেকে এখন পর্যন্ত সদস্যদের বরখাস্ত করা হয়েছে। 

ধীরে ধীরে বাকি আফপগান প্রদেশগুলোতেও এ কার্যক্রম শুরু করা হবে বলেও জানান তিনি। 

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তান শাসন করে তালেবান। এরপর দেশটির দখল নেয় যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট। প্রায় ২০ বছর পর সেখান থেকে অনেকটাই পালিয়ে বাঁচে মার্কিন সেনারা।  

আরও পড়ুন: কাজাখস্তানে বিক্ষোভ-সহিংসতায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২২৫

সবশেষ ২০ বছর পর গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান দখলে নেয় তালেবান। এরপর সেপ্টেম্বর মাসের শুরুতে তালেবান অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের প্রথম মন্ত্রিসভার ঘোষণা দেয়। অবশ্য বিশ্বের কোনো দেশই এখন পর্যন্ত তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেয়নি।

জাতিসংঘ বারবার সতর্ক করেছে যে, বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ মানবিক সংকটের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে আফগানিস্তান। দেশটির অর্ধেকেরও বেশি মানুষ তীব্র খাদ্য ঘাটতির সম্মুখীন হয়েছে এবং প্রচণ্ড শীতের মধ্যে লাখ লাখ আফগান অনাহারের মধ্যে থাকতে বাধ্য হচ্ছে।


একাত্তর/এসএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন