ঢাকা ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

দুর্নীতির অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করলেন শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, একাত্তর
প্রকাশ: ২৭ জানুয়ারী ২০২২ ১৯:৪১:১১ আপডেট: ২৭ জানুয়ারী ২০২২ ২১:১২:০৫
দুর্নীতির অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করলেন শিক্ষামন্ত্রী

চাঁদপুরে সরকারি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জমি অধিগ্রহণে শিক্ষামন্ত্রী ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি।

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় রাজধানীর হেয়ার রোডে মন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, চাঁদপুরে ক্রয়সূত্রে তার বা তার পরিবারের কোনো জমি নেই। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগকে ভিত্তিহীন ও অসত্য বলে দাবি করেন তিনি। 

মন্ত্রী বলেন, জমি অধিগ্রহণের জন্য নির্ধারিত যে জমিটি আছে সেখানে তার বা তার পরিবারের কারো কোনো জমি নেই। তার ভাইয়ের অল্প কিছু জমি ছিল, সেটা তিনি হস্তান্তর করে দিয়েছেন। যেহেতু এটি থাকলে অধিগ্রহণের সময় তিনি লাভবান হবেন, সেহেতু তিনি অধিগ্রহণের আগেই সেটি হস্তান্তর করে দিয়েছেন।

তবে সেখানে তার রাজনৈতিক পরিবারের কারো জমি থাকতে পারে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, তা করতে গেলেও কেউ নিশ্চয়ই তার সম্মতি নিয়ে জমি কিনবেন না। 

আরও পড়ুন: খালেদার মুক্তিতে পাকিস্তানীদের সঙ্গে হাত মেলালো বিএনপি

দলের মধ্যে থেকে কেউ এই কাজ করেছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, জমি নিয়ে কোন দুর্নীতি হয়নি। কিন্তু কারো দুর্নীতির অভিপ্রায় থেকে থাকতে পারে। তবে তা থাকলেও সেখানে তার পরিবারের কারো সম্পৃক্ততা নেই বলে দাবি করেন তিনি। 

সেইসাথে এখানে দুর্নীতি হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখার দাবি জানান শিক্ষামন্ত্রী। 

প্রসঙ্গত, চাঁদপুরে সরকার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য ভূমি অধিগ্রহণের আগেই সেখানকার সাড়ে ৬২ একর জমি মৌজা দরের চেয়ে ২০ গুণ বেশি দাম দেখিয়ে দলিল করার অভিযোগ করেছেন চাঁদপুর জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ।  

অভিযোগ রয়েছে, সরকারের কাছ থেকে ৩৫৯ কোটি টাকা বাড়তি নেওয়ার এ কারসাজিতে জড়িত ব্যক্তিদের মধ্যে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির ঘনিষ্ঠজন ও তার নিকটাত্মীয়ও রয়েছেন। 


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন