ঢাকা ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

সুন্দরবনে মৃত বাঘ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাগেরহাট
প্রকাশ: ২৮ জানুয়ারী ২০২২ ১৯:১০:৩৬ আপডেট: ২৮ জানুয়ারী ২০২২ ২২:২২:৪৮
সুন্দরবনে মৃত বাঘ উদ্ধার

সুন্দরবনে একটি খাল থেকে একটি রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে বন বিভাগ। 

শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) সকালে পূর্ব বন বিভাগের বাগেরহাট জেলাধীন দুবলারচরের কাছে রুপার খাল থেকে বাঘটির মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। বাঘটি বার্ধক্যজনিত কারণে মারা গেছে বলে ধারণা করছে বন বিভাগ।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন জানান, বন বিভাগের সদস্যরা সকালে টহল দেওয়ার সময় রূপার খালে মৃত অবস্থায় একটি বাঘ ভাসতে দেখে দ্রুত বাঘটি উদ্ধার করে। 

পুরুষ বাঘটির আনুমানিক বয়স ১৬ থেকে ১৭ বছর। মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে বাঘটির ময়নাতদন্ত করা হবে বলে তিনি জানান। 

তিনি আরো জানান, বন বিভাগের সদস্যরা বাঘটিকে কুলে উঠানোর পর ভালভাবে পর্যবেক্ষণ করে দেখেছেন বাঘের শরীরের কোথাও কোন ধরণের আঘাতে চিহ্ন নেই। ধারণা করা হচ্ছে বাঘটি বার্ধক্যজনিত কারণে মারা গেছে। 

আরও পড়ুন: নারায়ণগঞ্জে পোশাক কারখানায় আগুন

বিভিন্ন সময়ে দেওয়া বন বিভাগের তথ্য মতে, ২০০১ সাল থেকে ২০২২ সালের ২৮ জানুয়ারি পর্যন্ত সুন্দরবনে নানাভাবে ৪০টি বাঘের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগে ২৪টি এবং পশ্চিম বিভাগে ১৬টি বাঘের মৃত্যু হয়। এই সময়ের মধ্যে উদ্ধার করা হয়েছে প্রায় ২০টি বাঘের চামড়া।  

কখনও কখনও চোরা শিকারির হাতে বাঘের প্রাণহানি ঘটছে। আবার সুন্দরবন থেকে লোকালয়ে বের হলে গণপিটুনির শিকার হয়ে মারা গেছে বাঘ। আর ঝড়-জলোচ্ছ্বাসেও বাঘের মৃত্যু হচ্ছে। এছাড়া অসুস্থ হয়ে এবং বার্ধক্যজনিত কারণে বাঘ মারা যাচ্ছে সুন্দরবনে। 

২০১৮ সালের সর্বশেষ জরিপ অনুসারে, সুন্দরবনের বাংলাদেশ অংশে বাঘের সংখ্যা ১১৪টি। তবে এখন সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ঠিক কত তা বলতে পারেনি বন বিভাগ। 

বিভিন্ন সূত্র বলছে, বাঘের আটটি উপ-প্রজাতির তিনটি এরিমধ্যে বিশ্ব থেকে বিলুপ্ত হয়ে গেছে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের মাত্র ১২টি দেশে রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের অস্তিত্ব রয়েছে। সারা বিশ্বের বন উজাড়, শিকারি ও পাচারকারীদের কারণে বাঘ মহাবিপন্ন প্রজাতি হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। 


একাত্তর/এসজে 

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন