ঢাকা ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

মার্কিনরা যেভাবে বলছে, যেন কালই যুদ্ধ শুরু হবে: জেলেনস্কি

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ২৯ জানুয়ারী ২০২২ ১১:০৮:৪৫ আপডেট: ২৯ জানুয়ারী ২০২২ ১১:১০:৪১
মার্কিনরা যেভাবে বলছে, যেন কালই যুদ্ধ শুরু হবে: জেলেনস্কি

ইউক্রেন-রাশিয়া দ্বন্দ্ব নিয়ে এবার পশ্চিমাদের ওপর চটেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। অকারণে সীমান্ত নিয়ে আতঙ্ক না ছড়াতেও অনুরোধ করেছেন তিনি।

পশ্চিমাদের উদ্দেশে ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, আমাদের সীমান্তে রুশ সেনার উপস্থিতি নিয়ে অযথা আতঙ্ক ছড়াবেন না। ইউক্রেনে যেকোনো সময় হামলা হতে পারে, এ ধরনের কথা বলায় দেশের অর্থনীতি ক্ষতির মুখে পড়ছে।

আল-জাজিরা জানায়, শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) কিয়েভে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি। 

জেলেনস্কি বলেন, মার্কিন নেতারা যেভাবে বলছেন, যেন আগামীকালই যুদ্ধ শুরু হতে যাচ্ছে। এমন প্রচার আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। এটা আমাদের কত বড় ক্ষতির কারণ তা কি তারা জানেন?

এর আগে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশগুলো তাদের ইউক্রেন থেকে তাদের নিজ নিজ রাষ্ট্রদূত ও তাদের পরিবারকে ফিরিয়ে নিয়েছে। এ বিষয়ে সমালোচনা করেন জেলেনস্কি বলেন, দেশের ভেতরের এ ধরণের অস্থিতিশীলতাই এখন ইউক্রেনের জন্য বড় হুমকি।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, রাশিয়া আগামী মাসেই ইউক্রেনে হামলা চালাবে বলে তার বিশ্বাস। 

আর রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলছেন, ক্রেমলিন কিয়েভের সঙ্গে সংঘাতে জড়াতে চায় না। রাশিয়া যুদ্ধ চায় না।

আরও পড়ুন: শিল্পী সমিতির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন, হ্যাটট্রিক জায়েদ খানের 

চলতি মাসে এ বিষয়ে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেন, ইউক্রেনে কোনো ধরনের সামরিক আগ্রাসন চালানো উচিত হবে না। এক্ষেত্রে আমি মনে করি, কূটনৈতিক আলোচনা এ সমস্যা সমাধানের একমাত্র উপায়। খবর এএফপি'র। 

রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টাপাল্টি অবস্থান নিয়ে তিনি বলেন, আমি সাধারণভাবে বিশ্বাস করি যে আমাদের কূটনৈতিক সমাধান খুঁজে বের করার সুযোগ রয়েছে।

এর আগে চলতি মাসের প্রথম দিকে ইউক্রেন দাবি করে, তাদের সীমান্তে রাশিয়া এক লাখ সৈন্য জড়ো করেছে। আক্রমণের উদ্দেশ্যে এ সেনারা যে কোনো সময় ইউক্রেনের ভেতরে ঢুকে পড়তে পারে। তবে রাশিয়া এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে। এ নিয়ে উত্তেজনার পারদ চড়তে শুরু করলে যুক্তরাষ্ট্র কূটনৈতিক সমাধানের উদ্যোগ নেয়।


একাত্তর/আরবিএস    

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন