ঢাকা ২১ এপ্রিল ২০২১, ৮ বৈশাখ ১৪২৮

উন্নয়নশীল দেশগুলোকে ৬৫ হাজার কোটি ডলার সহায়তা দেবে আইএমএফ

একাত্তর ডেস্ক
প্রকাশ: ২৭ মার্চ ২০২১ ১৫:০৬:৫৮ আপডেট: ২৭ মার্চ ২০২১ ১৫:০৮:২৮
উন্নয়নশীল দেশগুলোকে ৬৫ হাজার কোটি ডলার সহায়তা দেবে আইএমএফ


করোনা মহামারীতে নিমজ্জিত অর্থনীতিকে টেনে তুলতে লড়াই করছে পুরো বিশ্ব। উন্নত দেশগুলো বিপুল পরিমাণ প্রণোদনা দিয়ে অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করছে। এক্ষেত্রে মহামারী মোকাবেলায় হিমশিম খাচ্ছে উন্নয়নশীল ও অনুন্নত দেশগুলো। মহামারীর শুরু থেকেই এ দেশগুলোর সহায়তায় এগিয়ে এসেছে আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থাগুলো। এবার উন্নয়নশীল দেশগুলোকে অতিরিক্ত ৬৫ হাজার কোটি ডলারের রিজার্ভ সহায়তা দিচ্ছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। স্বল্প সুদে দেয়া এ ঋণ টিকাদান কার্যক্রম এবং অন্যান্য জরুরি অবস্থাকে সহায়তার পাশাপাশি দেশগুলোর অর্থনীতিতে নগদ অর্থের প্রবাহ বাড়িয়ে তুলবে। খবর ব্লুমবার্গ।


সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে এ-সংক্রান্ত খসড়া তৈরিতে অনুমোদন দিয়েছে মুদ্রা তহবিলের বোর্ড। বৈঠক শেষে সংস্থাটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্রিস্টালিনা জর্জিয়েভা এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানান। আগামী জুনে এ-সংক্রান্ত আনুষ্ঠানিক পরিকল্পনা আসতে পারে।


জর্জিয়েভা বলেছেন, এ বিষয়ে দুর্বল ও স্বল্প আয়ের দেশগুলোকে সহায়তায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বাড়াতে এবং অর্থ বণ্টনে ভারসাম্য নিশ্চিত করতে তহবিল কর্মীরা নতুন পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন। এ তহবিল অনুমোদিত হলে দেশগুলোর অর্থনীতিতে নগদ অর্থপ্রবাহ বেড়ে যাবে। কভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম এবং অন্যান্য জরুরি ব্যবস্থা সমর্থনসহ সদস্য দেশগুলোর মহামারী মোকাবেলায় এ অর্থ দেয়া হবে।


এবার যুক্তরাষ্ট্রের অর্থমন্ত্রী জ্যানেট ইয়েলেন এ পদক্ষেপের সমর্থন দিয়েছেন। গত বছর ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ পদক্ষেপের বিরোধিতা করা হয়েছিল। সেই পদক্ষেপ আটকে দিয়ে ইয়েলেনের পূর্বসূরি স্টিভেন মানিউচন বলেছিলেন, আইএমএফের ১৯০ সদস্য দেশে কোটার অনুপাতে রিজার্ভ বরাদ্দ করা হয়েছে। এ অর্থের ৭০ শতাংশ শীর্ষ ২০ অর্থনীতির জোট জি২০-ভুক্ত দেশগুলোয় যাবে। আর এ সহায়তার মাত্র ৩ শতাংশ যাবে দরিদ্রতম উন্নয়নশীল দেশগুলোয়।


   


মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন