ঢাকা ২১ এপ্রিল ২০২১, ৮ বৈশাখ ১৪২৮

হেফাজতে ইসলাম থেকে মাওলানা আউয়ালের পদত্যাগ

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ৩১ মার্চ ২০২১ ১৪:৫৭:১৬ আপডেট: ৩১ মার্চ ২০২১ ১৫:০২:৫৫
হেফাজতে ইসলাম থেকে মাওলানা আউয়ালের পদত্যাগ

হেফাজতে ইসলাম থেকে নেতৃত্ব ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির মাওলানা আবদুল আউয়াল। সাম্প্রতিক হরতালে সহিংসতার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে গত সোমবার (২৯ মার্চ) রাতে নারায়ণগঞ্জ শহরের ডিআইটি বাণিজ্যিক এলাকার রেলওয়ে জামে মসজিদে শবে বরাতের বয়ানে তিনি এ ঘোষণা দেন। 

মাওলানা আবদুল আউয়াল হেফাজতে ইসলামের নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির আমির এর দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন। বয়ানে উপস্থিত মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, 'রোববার  হরতালের দিন সকালে মসজিদে পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব, ডিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ছুটে আসেন। ফজরের পর থেকে মসজিদের গেটের সামনে তিনটি জল কামান, সাজোয়া যান পুলিশের গাড়ি দিয়ে ব্যারিকেড দিয়ে রাখেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা আমাকে স্পষ্ট জানিয়ে দেন মিছিল বের করতে চাইলে অ্যাকশনে যাবেন।' 

তিনি বলেন, ‘তখন আমি সবার জানমাল রক্ষার স্বার্থে মসজিদের গেটের বাইরে যেতে বারণ করি। যদিও অনেক আবদার করেছে, চেষ্টাও করেছে, কিন্ত মসজিদ থেকে বের হতে পারি নাই। বের হতে দেই নাই। এখন শুনতেছি  চিটাগাং রোডে ১৭টি গাড়ি পুড়ছে। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় সন্ত্রাসী লোকজন পুড়িয়েছে। আমাদের ছাত্ররা পোড়াই নাই। আমাদের অতিউৎসাহী লোকজন বুঝে না।'

মাওলানা আউয়াল আরও বলেন, ‘আমি বলছি আল্লাহরওয়াস্তে আমি আর তোমাদের হেফাজতের দল করবো না। আমি মসজিদে থাকবো। ভবিষ্যতে আর নেতৃত্ব দিব না। মসজিদ মাদ্রাসা নিয়েই থাকবো। সরাসরি নেতৃত্বে আর যাবো না, যাবো না, যাবো না।’ 

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে ২৭ মার্চ হরতাল ডেকেছিল হেফাজতে ইসলাম। ওইদিন নারায়ণগঞ্জের ঢাকা–চট্টগ্রাম মহাসড়কে সহিংসতার ঘটনা ঘটে। গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুর করা হয়। 

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন