ঢাকা ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৬ আশ্বিন ১৪২৯

বাসের যাত্রী তোলা প্রতিযোগিতায় অসহনীয় হচ্ছে যানজট

জেমসন মাহবুব, একাত্তর
প্রকাশ: ০৪ এপ্রিল ২০২২ ২০:৫৪:৪৪ আপডেট: ০৪ এপ্রিল ২০২২ ২২:১৩:৫৫
বাসের যাত্রী তোলা প্রতিযোগিতায় অসহনীয় হচ্ছে যানজট

কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না রাজধানীর অসহনীয় যানজট। এজন্য সড়কের চরম বিশৃঙ্খলা ও অব্যবস্থাপনাকে দায়ী করছেন সংশ্লিষ্টরা।

উন্নয়ন কাজে রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি, রাস্তা আটকে বাসে যাত্রী তোলার প্রতিযোগিতা, এলোমেলো ভাবে গাড়ি চালানো, রাস্তা দখল করে গাড়ি পার্কিং করায় পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণের বাইরে।

ট্রাফিক বিভাগ আরও কিছু কারণের কথা জানিয়েছে। এসব মধ্যে রয়েছে সকালে একই সময়ে স্কুলগামী শিক্ষার্থী ও অফিসগামী মানুষ গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা করায় গাড়ির চাপ বাড়ছে। 

সিএনজি স্টেশনগুলো সন্ধ্যা ছয়টার মধ্যে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সিএনজি নেওয়ার জন্য দিনের বেলাতেই গাড়িগুলো রাস্তায় বের হচ্ছে। 

এ ছাড়া রাজধানীর প্রধান প্রধান কয়েকটি রাস্তায় উন্নয়নমূলক কাজ চলার কারণেও যানজট বেড়েছে বলে মনে করছেন তারা।

ট্রাফিক বিভাব বলছে, এই মুহূর্তে পরিস্থিতি সহনীয় করতে হলে বাসের চালক ও সহকারীদের সচেতন করতে হবে। শুধু আইন দিয়ে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানো সম্ভব নয়। 

সোমবার নগরীর শ্যামলীতে গিয়ে দেখা গেলো একদিকের সামনের রাস্তা ফাঁকা। কিন্তু রাস্তা আটকে যাত্রী তোলার প্রতিযোগিতায় লিপ্ত গণপরিবহনের চালক ও সহকারীরা। 

আর পেছনে যানবাহনের দীর্ঘ লাইন। আটকে আছে সব গাড়ি। বাসগুলোর এমন স্বেচ্ছাচারিতার কারণে যানজট ছড়িয়ে পড়েছে শ্যামলী থেকে কল্যাণপুর পর্যন্ত। 

শুধু এমন চিত্র শ্যামলী নয়, রাজধানীর সবগুলো গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টেই যাত্রীবাহী বাসের অযৌক্তিক প্রতিযোগিতার কারণে মোড়ে মোড়ে তৈরি হচ্ছে বিশাল জট।


একই দৃশ্যপট দেখা গেলো মীরপুরের শেওড়া পাড়া এলাকায়। মেট্রোরেল নির্মাণ কাজের কারণে যানজট সেখানে প্রতি মুহূর্তের ঘটনা। 

সড়কের পশ্চিম পাশটি বন্ধ প্রায় আট ন’মাস ধরে বন্ধ। বাকি এক পাশে চলছে দুইমুখী গাড়ি চলাচল। সেখানেও শীর্ণ রাস্তা আটকে চলে বাসগুলোর যাত্রী তোলার প্রতিযোগিতা। 

এসব চিত্রই বলে দেয় যানজটের অন্যতম কারণ ট্রাফিক আইন না মানা এবং আইন অমান্য করা ব্যক্তিদের কোন শাস্তি না হওয়া। 

আরও পড়ুন: গ্যাস সরবরাহ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে আরো দু’তিন দিন

যদিও ট্রাফিক বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, আইন অমান্যকারীদের জরিমানা করা হচ্ছে। কিন্তু চালক ও সহকারীরা সচেতন না হলে শুধু আইন দিয়ে রাস্তায় শৃঙ্খলা ফেরানো সম্ভব নয়। ট্রাফিক আইন মেনে গাড়ি চালালে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরবে। কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে আসবে যানজট।

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছাদ খোলা অভিবাদন!

ছাদ খোলা অভিবাদন!

৯ দিন ২০ ঘন্টা আগে