ঢাকা ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯

দুয়েকদিনের মধ্যে নিয়ন্ত্রণে আসছে রাজধানীর যানজট

নয়ন আদিত্য, একাত্তর
প্রকাশ: ১৯ এপ্রিল ২০২২ ২১:২১:৫৬
দুয়েকদিনের মধ্যে নিয়ন্ত্রণে আসছে রাজধানীর যানজট

আর দুই একদিনের মধ্যেই রাজধানীর যানজট নিয়ন্ত্রণে আসবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এজন্য একটি কর্মপদ্ধতিও বের করেছে পুলিশ বিভাগ।

এবারের ঈদ যাত্রায় মহাসড়কে নিরাপত্তা ও যানজট নিয়ন্ত্রণে পোশাক শ্রমিকদের কয়েক দফায় ছুটি দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি। 

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, জরুরি সেবাপণ্য ছাড়া ঈদের আগে ও পরে তিনদিন মহাসড়কে ট্রাক চলাচল করতে পারবে না। 

ঈদের আগে দেশের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা, পোশাক শ্রমিকদের বেতন-ভাতা পরিশোধ, সড়ক নিরাপদ ও যানজটমুক্ত রাখাসহ অন্যান্য বিষয় নিয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে সভা শেষে এক ব্রিফিংয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ঈদে মহাসড়কে যাতে যানজট না হয় সেজন্য হাইওয়ে পুলিশসহ জেলা পুলিশ ও সড়ক বিভাগ কাজ করবে। 

পাশাপাশি মহাসড়কে নিরাপত্তা নিশ্চিতে হাইওয়ে পুলিশের পাশাপাশি র‍্যাব, জেলা পুলিশ, মেট্রোপলিটন পুলিশের টহল ও গোয়েন্দা নজরদারি থাকবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে রাজধানীর যানজট পরিস্থিতির অন্যতম কারণ, ঢাকায় অনেকগুলো উন্নয়ন কাজ চলমান। 

এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, মেট্রোরেল ও ফ্লাইওভারগুলোর কারণে কিছু প্রতিবন্ধকতা তৈরি হয়েছে। এই যানজটের সেটি একটি কারণ। 

তাছাড়া অনেকদিন পর স্কুল-কলেজ ও গণপরিবহনসহ সবকিছু খুলে গেছে। আবার ঈদ আসছে। সব মিলিয়ে একসঙ্গে চাপ পড়েছে সড়কে।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, ঈদ সামনে রেখে যানজট সহনীয় রাখতে ট্রাফিক বিভাগ সাত দিনের মধ্যে একটি কর্মপদ্ধতি ঠিক করবে। আশা করি দুয়েকদিনের মধ্যে যানজট নিয়ন্ত্রণে আসবে।

সড়কে শৃঙ্খলা রক্ষার ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাস, ট্রেন ও লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহণ করা যাবে না। তদারকির জন্য থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য। 

এ সময় পোশাক কারখানায় ছুটির বিষয়টি সামনে এনে মন্ত্রী বলেন ৬০ লাখ শ্রমিক ঈদে ঢাকা ছাড়বে। পোশাক কারখানায় পর্যায়ক্রমে ছুটি দেয়া হবে। 

বেতন ভাতা সময়মতো দেয়ার জন্য মালিকদের বলা হয়েছে বলেও জানান তিনি। আর বিষয়টি নিশ্চিত করতে শ্রম মন্ত্রণালয়ও কাজ করতে বলেও জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। 

তিনি জানান, শিল্প পুলিশসহ বিজিএমইএ, বিকেএমইএসহ অন্যান্য সংগঠন বসে সিদ্ধান্ত নেবে কোন শিল্প কারখানা কখন বন্ধ ঘোষণা করবে। 

এখানে অনেক কিছু নির্ভর করে। যেমন, শ্রমিকদের বেতনভাতা পরিশোধের বিষয়, বিদেশি অর্ডারের বিষয়ের ওপরও কিছু নির্ভর করে।

ঈদের সময়ে চুরি, ছিনতাই, চাঁদাবাজির মতো অপরাধ প্রতিরোধ ও আইনশৃঙ্খলা নিশ্চিত করতে গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় চেকপোস্ট বসানো ও টহল জোরদার করা হবে বলেও জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।


মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন