ঢাকা ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিনিধি, নওগাঁ
প্রকাশ: ২৪ এপ্রিল ২০২২ ১০:০১:০৫
শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

নওগাঁর মান্দায় সাত বছর বয়সী প্রথম শ্রেণির এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত থাকায় শনিবার (২৩ এপ্রিল) রাতেই প্রতিবেশী অভিযুক্ত জুয়েল হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

এর আগে শনিবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলার ভালাইন ইউনিয়নের পশ্চিম লক্ষ্মীরামপুর গ্রামের একটি বাঁশঝাড় থেকে শিশুটি তার মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদি হয়ে শনিবার রাতে থানায় মামলা দায়ের করেন। শিশুটি স্থানীয় বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী। 

স্থানীয় ইউপি সদস্য হারুন-অর-রশীদ জানান, ওই শিশুর পাশের বাড়িতে মিলাদের অনুষ্ঠান চলছিল। গ্রামের লোকজন মিলাদের আয়োজনে ব্যস্ত ছিলেন। 

হঠাৎ করেই বিকেল ৪টা থেকে শিশুটি নিখোঁজ হয়। তাকে মিলাদ বাড়িসহ বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও পাওয়া যাচ্ছিল না। 

ইফতারের আগ মুহূর্তে শিশুটির বাড়ির কিছু দূরে এক ব্যক্তির বাঁশঝাড়ের আবর্জনা দিয়ে ঢেকে রাখা শিশুটির বিবস্ত্র মরদেহ দেখতে পান স্থানীয়রা। এরপর থানা পুলিশে সংবাদ দেওয়া হয়। 

তিনি আরও জানান, শিশুটির পরনে কোনো কাপড় ছিল না। মুখে ন্যাকড়া ঢোকানো ছিল। অবস্থা দেখে ধারণা করা হচ্ছে শিশুটিকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন: রানা প্লাজা ট্র্যাজেডির ৯ বছর, এখনো ক্ষতিপূরণ পাননি আহতরা

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহিনুর রহমান জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে ধর্ষণ করে হত্যা করেছে। মরদেহের প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ওসি আরও জানান, থানায় মামলা দায়ের করা হলে ঘটনায় জড়িত থাকায় অভিযুক্ত প্রতিবেশী জুয়েলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে প্রাথমিকভাবে জুয়েল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে।


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছাদ খোলা অভিবাদন!

ছাদ খোলা অভিবাদন!

১০ দিন ১০ ঘন্টা আগে