ঢাকা ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯

গোটা মারিউপোল রাশিয়ার দখলে, সরে গেছে ইউক্রেন সেনারা

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ১৭ মে ২০২২ ২১:০২:৫৪ আপডেট: ১৭ মে ২০২২ ২৩:২৬:৩৬
গোটা মারিউপোল রাশিয়ার দখলে, সরে গেছে ইউক্রেন সেনারা

অবরুদ্ধ মারিউপোলের আজভস্তাল ইস্পাত কারখানায় দু’মাসেরও বেশি সময় ধরে আটকে থাকা ২৬৪ জন ইউক্রেনীয় সেনাকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। 

ইউক্রেনের উপ প্রতিরক্ষামন্ত্রী হান্না মালিয়ার এ তথ্য জানিয়ে বলেন, সেনাদের বিনিময়ে আটক থাকা রুশ সেনাদের মুক্তি দেয়া হবে। আটকে থাকা বাকিদেরও উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

অবশেষে অবরুদ্ধ মারিউপোল রুশ সেনাদের হাতেই ছেড়ে দিলো ইউক্রেন। অবসান হলো দীর্ঘ এক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের। বলা হচ্ছে যুদ্ধে ইউক্রেনের এটি উল্লেখযোগ্য একটি পরাজয়। 

স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় আটকে থাকা সেনাদের নিয়ে বেশ কয়েকটি বাসকে আজভস্টলের বিশাল শিল্প কারখানা এলাকা ছেড়ে যেতে দেখা যায়। 


হান্না মালিয়ার জানান, সরিয়ে নেয়া সেনাদের মধ্যে গুরুতর আহত ৫৩ জনকে বিদ্রোহীদের দখলে থাকা নভোজভস্ক শহরের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। 

আর মানবিক করিডোর ব্যবহার করে আরও ২১১ জনকে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত আরেকটি শহর ওলেনিভকায় সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

এই সেনাদের বিনিময়ে আটক থাকা রুশ সেনাদের মুক্তি দেয়া হবে বলে জানান হান্না মালিয়ার। এর আগে রাশিয়ার পক্ষ থেকে বলা হয়, ইউক্রেনের আহত সেনাদের সরিয়ে নিতে চুক্তি হয়েছে।

স্থানীয় সময় সোমবার মধ্যরাতের পর এক ভিডিও বার্তায় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, সরিয়ে নেয়ার এই অভিযানে ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনী, গোয়েন্দা এবং আলোচক দলের পাশাপাশি রেড ক্রস এবং জাতিসংঘের প্রতিনিধিরাও যুক্ত ছিলেন।

এর আগে মার্চের শুরু থেকে রুশ বাহিনী মারিউপোল শহর ঘিরে রাখার পর শত শত ইউক্রেনীয় সেনা—আজভ রেজিমেন্ট, ন্যাশনাল গার্ড, পুলিশ, আঞ্চলিক প্রতিরক্ষা ইউনিটসহ অনেক বেসামরিক নাগরিক কারখানাটিতে অবস্থান নেয়। 


আরও পড়ুন: মানবাধিকার কমিশন বিলুপ্ত করে দিলো তালেবান

সম্প্রতি সেখানে থাকা বেসামরিক নাগরিকদের সরিয়ে নেয়া হয়। ধারণা করা হচ্ছে আরও ৬০০ ইউক্রেনীয় সেনা এখনও ইস্পাত কারখানাটির ভেতরে আছে। 

এ প্রসঙ্গে ইউক্রেনের উপ প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, ইউক্রেনের সেনা, গোয়েন্দা বিভাগ, ন্যাশনাল গার্ডসহ প্রতিরক্ষাবাহিনীর সদস্যেরা আটকে থাকা বাকিদের উদ্ধারে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।


একাত্তর/এসি

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

৪ দিন ১৪ ঘন্টা আগে