ঢাকা ০৪ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯

পিকে হালদারকে দেশে ফেরাতে কমিটি করেছে দুদক

নিজস্ব প্রতিবেদক, একাত্তর
প্রকাশ: ১৮ মে ২০২২ ১৪:২৪:৪৪ আপডেট: ১৮ মে ২০২২ ১৯:২১:৪৯
পিকে হালদারকে দেশে ফেরাতে কমিটি করেছে দুদক

দেশে বেশ কয়েকটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করে পালিয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ধরা পড়া পি কে হালদার ওরফে প্রশান্ত কুমার হালদারকে দেশে ফিরিয়ে আনতে একটি কমিটি গঠন করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক। 

তবে, এই কমিটি সম্পর্কে বিস্তারিত কোন তথ্য এখনো জানায়নি দুদক। কমিটিতে কতজন সদস্য রয়েছেন, কারা আছেন সে সম্পর্কেও কিছু বলেনি সংস্থাটি।  

পি কে হালদারের অর্থ আত্মসাৎ ও পাচার মামলার কাজের তদন্ত করছিলেন দুদকের উপ-পরিচালক গুলশান আনোয়ার। আর, জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলাটি তদন্ত করেছেন উপ-পরিচালক সালাউদ্দিন।

এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক পি কে হালদারের বিরুদ্ধে নামে-বেনামে নানা আর্থিক প্রতিষ্ঠান খুলে হাজার হাজার কোটি টাকা লোপাটের অভিযোগে ইতোমধ্যে ৩৪টি মামলা হয়েছে।

অর্থপাচার ও আত্মসাতের মামলায় বর্তমানে কলকাতায় রিমান্ডে আছেন পি কে হালদার। দ্বিতীয় দফায় তাকে আবারো ১০ দিনের রিমান্ডে নেয় ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রণালয়ের তদন্তকারী সংস্থা, এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট-ইডি। এর আগে, তাকে তিন দিনের রিমান্ডে রাখা হয়। 

পি কে হালদারের সঙ্গে গ্রেপ্তার আরও চারজনকেও ১০ দিনের রিমান্ডে পাঠানো হয়েছে। আর গ্রেপ্তার একমাত্র নারীকে পাঠানো হয়েছে বিচারিক হেফাজতে। রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি অরিজিৎ চক্রবর্তী জানান, তাদের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের মামলায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। 

আরও পড়ুন: পরীমণির মামলায় নাসির ও অমির বিচার শুরু

যে ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, মঙ্গলবার (১৭ মে) তাদের পরিচয় প্রকাশ করেছে ইডি। তাতে পি কে হালদার বা প্রশান্ত হালদার ভারতে শিব শঙ্কর হালদার নাম ভাঁড়িয়ে ছিলেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে। 

গ্রেপ্তার অন্যদের নাম বলা হয়েছে- স্বপন মৈত্র ওরফে স্বপন মিস্ত্রি, উত্তম মৈত্র ওরফে উত্তম মিস্ত্রি, ইমাম হোসেন ওরফে ইমন হালদার, প্রাণেশ কুমার হালদার এবং আমেনা সুলতানা ওরফে শর্মি হালদার।


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

২ দিন ২ ঘন্টা আগে