ঢাকা ১২ আগষ্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

অর্থনৈতিক চাপ সামাল দেয়ার উপায় খুঁজতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

শারমিন নীরা, একাত্তর
প্রকাশ: ১৯ মে ২০২২ ২২:২৫:৩৫ আপডেট: ১৯ মে ২০২২ ২২:৩৪:০৫
অর্থনৈতিক চাপ সামাল দেয়ার উপায় খুঁজতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ, ডলার বাজারে অস্থিরতা আর সার্বিক অথনৈতিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে অর্থ-বাণিজ্য ও বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তাদের বৈঠক করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

মন্ত্রীপরিষদ সচিব জানান, পরিস্থিতি বুঝে ব্যবস্থা নেয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এদিকে, পদ্মা সেতুর নাম থাকছে নদীর নামেই।

তেল আটা ডালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় সব পন্যের দাম বাড়ছে দফায় দফায়। রুশ ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে সবশেষ অস্থির হয়েছে আটা ময়দার বাজার। নতুন করে বেড়েছে তরল দুধের দামও।

সেই সঙ্গে অস্থির হয়েছে মার্কিন ডলারের বাজার। মান কমেছে টাকারও। আমদানি বাড়ায় চাপ বাড়ছে রিজার্ভের ওপরও।

করোনার স্থবিরতার পর যখন সচল হচ্ছিলো বিশ্ব অর্থনীতি, ঠিক তখন রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধ তৈরি করেছে অর্থনৈতিক নানা সঙ্কট। 

সঙ্কট কাটিয়ে অর্থনীতির ঝুকি কিভাবে কমানো যায় সেটাই ছিলো মন্ত্রিসভায় আলোচনার মূল বিষয়। পরিস্থিতি পর্যালোচনায় নির্দেশ দেয়া হয়েছে অর্থ, বাণিজ্য ও বাংলাদেশ ব্যাংককে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠক শেষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে একথা জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

তিনি বলেন, অর্থনৈতিক চাপ মোকাবেলায় এই তিন পক্ষকে একসঙ্গে বসে করণীয় ঠিক করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দ্রব্যমূল্য নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে জানিয়ে সচিব বলেন, বাণিজ্য ও অর্থ মন্ত্রনালয়কে কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। যথাযথ ব্যবস্থা নিয়ে সবপক্ষকে জানাতে বলা হয়েছে।

বিশেষ করে কীভাবে পণ্যর দাম বাড়ছে বা সরবরাহ কমছে, সেসব কিভাবে সামালতে হবে, কোথায় ছাড় দিতে হবে, কোথায় কড়াকড়ি করতে হবে, তা ঠিক করতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।

সেই সঙ্গে ডলার সংকটের সমাধান কিভাবে করা যায়, সেই উপায় বের করতে দুতিন দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বসতে বাংলাদেশ ব্যাংকে নির্দেশও দিয়েছেন সরকার প্রধান।

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম আরও জানান, আসছে মাসেই উদ্বোধন হচ্ছে পদ্ম সেতুর। নদীর নামেই এই সেতুর নাম হবে। তবে চূড়ান্ত ঘোষণা দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

সচিব বলেন, মন্ত্রিসভার বৈঠকে পদ্মা সেতুর নামকরণ নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন সময় বলেছেন পদ্মা সেতু নামেই এর নামকরণ হবে।

তিনি বলেন ফেরির তুলনায় দেড় শতাংশ বেশি ধরে সেতুর টোল ঠিক করা হয়েছে। যা দিয়ে ১৫-১৬ বছরের মধ্যে সেতু নির্মার্ণের টাকা উঠে আসবে বলেও জানান মন্ত্রী পরিষদ সচিব।

এছাড়া তিনি জানান, বাংলাদেশের স্বাস্থ্য খাতের বিভিন্ন কর্মসূচির জন্য প্রায় একশ কোটি মার্কিন ডলার বরাদ্দ করেছে বিশ্বব্যাংক। এটি ঋণ হিসেবে দেবে ব্যাংকটি।

এদিকে, হাট ও বাজার আইন, ভূমি উন্নয়ন কর আর ভূমি সংস্কার আইন ২০২২ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদনও দিয়েছে মন্ত্রীসভা।


একাত্তর/এসএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

১ মাস ১০ দিন আগে