ঢাকা ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯

বর্তমান ইসির অধীনেই বিএনপিকে ভোট আসতে হবে: কাদের

সৌমিত্র মজুমদার, একাত্তর
প্রকাশ: ২২ মে ২০২২ ১৬:২১:০৭ আপডেট: ২২ মে ২০২২ ২০:৩৮:০৭
বর্তমান ইসির অধীনেই বিএনপিকে ভোট আসতে হবে: কাদের

সরকার নয়, সংবিধান অনুযায়ী গঠিত নির্বাচন কমিশনের অধীনেই হবে আগামী সংসদ নির্বাচন হবে এবং এটি মেনে নিয়েই বিএনপিকে নির্বাচনে আসতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। 

রোববার, বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মৎস্যজীবী লীগের ১৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, বর্তমান সংবিধানের বাইরে সরকার এক চুলও নড়বে না সরকার। 

নির্বাচন যতো এগিয়ে আসছে, আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক কর্মসূচিতে যুক্ত হচ্ছে নির্বাচনী হাওয়া। এর আগে দলের সহযোগী সংগঠনের অনুষ্ঠানগুলোতে শীর্ষ নেতার তেমন একটা দেখা না গেলেও, এখন সব অনুষ্ঠানেই বাড়ছে নেতাদের অংশগ্রহণ। 

মৎস্যজীবী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, উচ্চ আদালতের আদেশে বাতিল হওয়া তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা দেশে আর ফিরবে না। নির্বাচন হবে গত দুইবারের মতো, নির্বাচন কমিশনের অধীনে।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনার সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে না, নির্বাচন হবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে। নির্বাচনের সময় দেশের সকল আইন শৃঙ্খলা বাহিনীও নির্বাচন কমিশনের অধীনে থাকে। সরকারের হাতে ক্ষমতা থাকে না। তখন সরকার হস্তক্ষেপ করতেও পারে না।

সরকার অবাধ, সুষ্ঠু, সুন্দর নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনকে সহযোগিতা করবে জানিয়ে কাদের আরও বলেন,  এটাই নিয়ম, এর বাইরে অন্য কোনো পথ নেই। বিএনপিকে এ পদ্ধতি মেনেই নির্বাচনে আসতে হবে।

তিনি বলেন, নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা করছে বিএনপি। পানি ঘোলা করে সময় এলে বিএনপি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবে। নিয়মের বাইরে অন্য কোনো পথ নেই। বিএনপিকে নিয়ম মেনেই নির্বাচনে আসতে হবে।

বিএনপিকে নির্বাচনে আসার পরামর্শ দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির কথায় শেখ হাসিনার সরকার পদত্যাগ করবে কেন। আন্দোলনে ব্যর্থ, নির্বাচনে ব্যর্থ তাদেরই (বিএনপি) টপ টু বটম পদত্যাগ করতে হবে। সারা বিশ্বসভায় শেখ হাসিনার নেতৃত্ব প্রশংসিত হচ্ছে। নির্বাচনে যাবে বলছেন, নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের পায়তারা করবেন না। ফখরুল সাহেব, চিৎকার চেচামেচি করে লাভ নেই। ক্ষমতার পরিবর্তন হবে নির্বাচনে।

দেশের অধিকাংশ জনগণই যেহেতু বর্তমান সরকারকে সমর্থন করে, তাই বিএনপি যতো দাবিই তুলুক সরকার পদত্যাগ করবে না বলেও জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

পদ্মাসেতু উদ্বোধন হবে এই কথা শুনলেই বিএনপির মুখ কালো হয়ে যায় উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে আছে বলেই বাংলাদেশ আজ ভালো আছে। শেখ হাসিনার জন্যই পথ হারায়নি বাংলাদেশ। শেখ হাসিনা থাকলে বাংলাদেশের উন্নয়ন হবে। শেখ হাসিনা থাকলে আমরা থাকব।

আরও পড়ুন: পদ্মাসেতু নিয়ে বিএনপি নেতার আবেগঘন স্ট্যাটাস

ওবায়দুল কাদের বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পর শেখ হাসিনার মতো সাহসী ও জনপ্রিয় নেতা সৃষ্টি হয়নি। আজ শেখ হাসিনাকে নিয়ে আমরা গর্ব করি। কারণ বিশ্বের সৎ তিনজন প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে শেখ হাসিনা একজন।

মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি সায়ীদুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, মৎস্যজীবী লীগের সাধারণ সম্পদাক শেখ আজগর নস্কর ও মৎস্যজীবী লীগের কার্যকরী সভাপতি সাইফুল আলম মানিক।


একাত্তর/এসি

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

৪ দিন ১৪ ঘন্টা আগে