ঢাকা ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯

স্ত্রী-সন্তান বসিয়ে যমুনায় গোসলে নেমে যুবক নিখোঁজ, দুইদিন পর লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিনিধি, মানিকগঞ্জ
প্রকাশ: ২২ মে ২০২২ ১৯:২৯:৫৮ আপডেট: ২২ মে ২০২২ ১৯:৩১:৩০
স্ত্রী-সন্তান বসিয়ে যমুনায় গোসলে নেমে যুবক নিখোঁজ, দুইদিন পর লাশ উদ্ধার

প্রতীকী ছবি

মানিকগঞ্জের শিবালয়ে যমুনা নদীতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হওয়ার দুইদিন পর আশ হাবিব (৪৩) নামের এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

রোববার (২২ মে) দুপুরে শিবালয় উপজেলার জাফরগঞ্জ এলাকায় নদীতে তার লাশ ভাসতে দেখে পুলিশকে খবর দেন স্থানীয়রা। পরে পাটুরিয়া নৌ-থানার পুলিশ গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে।

আহসান হাবিব ঢাকার আশুলিয়ার ঘোষবাগ এলাকায় অবস্থিত নাসা গার্মেন্টেসের জেনারেল ম্যানেজার ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি বগুড়া জেলা শহরের ফুলবাড়ি এলাকায়। তবে সপরিবারে তিনি ঢাকার সাভারের রেডিও কলোনি এলাকায় বসবাস করতেন।

জানা গেছে, গত শুক্রবার তিনি ব্যক্তিগত গাড়িতে স্ত্রী শামীমা নাসরিন ও একমাত্র শিশু সন্তান অহনকে (১০) নিয়ে জাফরগঞ্জ এলাকায় যমুনা নদীর পাড়ে বেড়াতে যান।

বেলা তিনটার দিকে স্ত্রী ও ছেলেকে যমুনা নদীর তীরে বসিয়ে তিনি নদীতে গোসল করতে নামেন। এক পর্যায়ে হাবিব নদীতে ডুবে যান। পরে স্থানীয় লোকজন বিষয়টি জানতে পেরে নদীতে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন হদিস পায়নি। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও নৌ পুলিশের ডুবুরিরা শনিবার সকাল সাতটা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত জাফরগঞ্জ ও এর আশপাশে যমুনা নদীতে উদ্ধার অভিযান চালান। তবে নিখোঁজ হাবিবের সন্ধান মেলেনি সেসময়।

আজ রোববার বেলা ১১টার দিকে জাফরগঞ্জ এলাকায় লাশ ভেসে উঠলে স্থানীয় বাসিন্দারা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে।

আরও পড়ুন: রাজধানীতে বৈদ্যুতিক খুঁটি পড়ে রিকশাচালকের মৃত্যু

আহসান হাবিবের স্ত্রীর বরাতে স্থানীয় ইউপি সদস্য (মেম্বার) জাহাঙ্গীর আলম জানান, কয়েকদিন আগে আহসান হাবিবের কয়েকজন সহকর্মী জাফরগঞ্জ এলাকায় বেড়াতে এসেছিলেন। তারা যমুনা নদীতে গোসল করা এবং ঘোরাঘুরির বিভিন্ন ছবি ফেসবুকে আপলোড করেন। ওই ছবিতে দেখা যায় তিনি স্ত্রী, পুত্র নিয়ে বেড়াতে গিয়েছিলেন।

পাটুরিয়া নৌ-থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক বলেন, স্বজনদের দেয়া ছবি দেখে লাশের পরিচয় শনাক্ত করা হয়েছে। নিহত আহসান হাবিবের মরদেহ প্রয়োজনীয় আইনি প্রক্রিয়া শেষে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।


একাত্তর/আরএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন