ঢাকা ০১ আগষ্ট ২০২১, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮

গোয়েন্দাদের আরও নতুন তথ্য দিলেন মামুনুল

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ২৫ এপ্রিল ২০২১ ১৪:৪৭:০২ আপডেট: ২৬ এপ্রিল ২০২১ ১৪:২৫:১৬
গোয়েন্দাদের আরও নতুন তথ্য দিলেন মামুনুল

দেশের কোন মাহফিলে কে ওয়াজ করবেন, সেটাও হেফাজতে ইসলামের নেতাদের একটি অংশ নিয়ন্ত্রণ করতেন বলে দাবি করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম জানিয়েছেন, সম্প্রতি সংগঠনটির কয়েক নেতাকে গ্রেপ্তারের পর তাদের জিজ্ঞাসাবাদে এই তথ্য পাওয়া গেছে। 

তিনি বলেন, রাবেতাতুল ওয়ায়েজীন নামের একটি সংগঠন বেশ তৎপর। এর নেতৃত্বে আছেন হেফাজতের উগ্রপন্থি নেতারা। কোথাও কোনো ওয়াজ মাহফিল করতে হলে তাদের মাধ্যমে আসতে আয়োজকদের বাধ্য করা হয়।

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক ‘রাবেতাতুল ওয়ায়েজীন’র নেতৃত্বে ছিলেন দাবি করে গোয়েন্দা কর্মকর্তা মাহবুব বলেন, আগে ‘শিশু বক্তা’ রফিকুল ইসলাম মাদানী এই সংগঠনের সঙ্গে জড়িত ছিলেন না, সম্প্রতি তাকে যুক্ত করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, পাকিস্তানের ‘তেহেরিক-ই-লাব্বায়িক’ নামের সংগঠনের আদলে তারা হেফাজতে ইসলামী বাংলাদেশকে গঠন করে পাকিস্তান বা আফগানিস্তানের মতো এদেশকে গড়ে তুলতে চায়। যার পেছনে জামাত-শিবির রয়েছে।

শনিবার গ্রেপ্তার হেফাজতের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির আহমদ আবদুল কাদের ইসলামী ছাত্রশিবিরের একজন সাবেক সভাপতি।

মাহবুব বলেন, হেফাজত ইসলামীর অধিকাংশই জামায়াত-শিবিরের সঙ্গে জড়িত। মূলত তারাই নেতৃত্ব দিচ্ছে হেফাজতকে।

আর এ কারণে ২০১৩ সালে তারা নাশকতা চালিয়ে সরকার পতনের যে চেষ্টা চালিয়েছিল, একইভাবে ভারতের নরেন্দ্র মোদীর সফরকে ঘিরে দেশব্যাপী নাশকতার মাধ্যমে সরকারকে বেকায়দায় ফেলার পরিকল্পনা তাদের ছিল।”

২০১৩ সালে হেফাজতের আমির ছিলেন শাহ আহমদ শফী। তিনি গত বছর মারা যান। তার মৃত্যুর পর হেফাজতে ‘উগ্রপন্থিরা’ নিয়ন্ত্রণে আসে বলে দাবি করছেন গোয়েন্দা কর্মকর্তা মাহবুব।

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন