ঢাকা ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯

প্রথম নারী প্যারামেডিক অর্চনার অপেক্ষায় স্বজনরা

জেমসন মাহবুব, একাত্তর
প্রকাশ: ২৭ মে ২০২২ ১৯:০৮:৪৬ আপডেট: ২৭ মে ২০২২ ১৯:১২:২৯
প্রথম নারী প্যারামেডিক অর্চনার অপেক্ষায় স্বজনরা

অপেশাদার যোগাযোগ মাধ্যম ও ভারতে এফএম রেডিও ‘হাম রেডিও’ ব্যবহারকারীদের মাধ্যমে ১৩ বছর পর ভারতে খোঁজ মিললো বাংলাদেশের প্রথম নারী প্যারামেডিক অর্চনা মল্লিকের। 

মেয়ের শোকে সন্ন্যাস নেয়া অর্চনা বর্তমানে আছেন পশ্চিমবঙ্গের গঙ্গাসাগর কালি মন্দিরে। তাকে ফিরিয়ে আনতে ভারত ও বাংলাদেশের কাছে আবেদন করেছে পরিবার। কিন্তু দুই দেশের কর্তৃপক্ষের উদ্যোগহীনতায় দেশে ফিরতে পারছেন না অর্চনা। 

চিকিৎসাশাস্ত্রে ডিপ্লোমা পাস করা দেশের প্রথম নারী প্যারামেডিক অর্চনা মল্লিকের ভাগ্য বিড়ম্বনার শুরু ২০০৯ সালে। মেয়ের চিকিৎসার জন্য তিনি গিয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গে ননদের বাড়িতে। 


অর্চনা সেখান থেকে মেয়েকে নিয়ে পাড়ি দেন দক্ষিণেশ্বরের কালি মন্দিরে। সেখানে তার আদরের মেয়ে মারা যায়। মেয়ের শোকে সন্ন্যাস জীবন বেছে নেন অর্চনা। যা জানতেন না স্বজনরা।

মেয়ের মৃত্যুর পর অর্চনা চলে যান নদীয়ার মায়াপুর ইসকন মন্দিরে। সেখানেই কেটে যায় এক যুগ। অন্যদিকে খুঁজতে খুঁজতে ক্লান্ত স্বজনরা তাকে পাবার আশা ছেড়েই দেন। 

দুই বছর আগে পশ্চিমবঙ্গের গঙ্গাসাগরে অর্চনার সন্ধান পান ‘হাম রেডিও’ সংগঠনের এক সদস্য। ভারত বাংলাদেশ দুই দেশেই আছে সংগঠনের সদস্যরা। 

এক পর্যায়ে তারা জানতে পারেন অর্চনা বাংলাদেশের খুলনা থেকে হারিয়ে যাওয়া এক নারী। কথা প্রসঙ্গে জানতে পারেন অর্চনার ভাগ্নে শ্যামল একজন স্কাউট সদস্য। 

আরও পড়ুন: ষষ্ঠ শ্রেণির নতুন শিক্ষাক্রম নিয়ে চ্যালেঞ্জের মুখে শিক্ষকরা

স্কাউটে যুক্ত এমন মোট ৬৫ জন শ্যামলের মধ্যে থেকে অর্চনা মল্লিকের ভাগ্নে শ্যামলকে খুঁজে বের করেন হ্যাম রেডিওর সদস্যরা। 

এবার তাকে ফিরিয়ে আনার পালা। ২০২১ সালে অর্চনাকে ফিরিয়ে আনতে পশ্চিমবঙ্গে আবেদন করেন স্বজনরা। কিন্তু বাংলাদেশ থেকে কোন সাড়া না মেলায় তাকে ফেরাতে পারছে না পরিবার। 


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন