ঢাকা ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯

অবৈধ হাসপাতাল-ক্লিনিক বন্ধে চলছে শেষ দিনের অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক, একাত্তর
প্রকাশ: ২৯ মে ২০২২ ১২:০৯:৫৭ আপডেট: ২৯ মে ২০২২ ১২:১৫:১২
অবৈধ হাসপাতাল-ক্লিনিক বন্ধে চলছে শেষ দিনের অভিযান

দীর্ঘ দিন ধরে আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করেই চলছিলো দেশের অবৈধ হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো। কিন্তু সম্প্রতি দেশের অবৈধ হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ করতে কঠোর অবস্থান নিয়েছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় ৭২ ঘণ্টার যে সময় বেঁধে দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, যা রোববার শেষ হচ্ছে। 

এরই অংশ হিসেবে রোববার সকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে বিভিন্ন হাসপাতালে তদারকি শুরু করেন কর্মকর্তারা। এসময় প্রিমিয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নবায়নযোগ্য কাগজপত্র না থাকায়, বর্জ্য ব্যবস্থাপনার পরিবেশ ভালো না হওয়ায়, প্রতিষ্ঠানটি সময় বন্ধ ঘোষণা করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। 

এছাড়াও, সকল কাগজপত্র নবায়ন করার পরে তারা পুনরায় কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারবেন বলে জানান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডঃ আহসানুল হক।

এর আগে গত ২৬ মে সারাদেশের অবৈধ হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধের নির্দেশনা দেয় সরকার। দেশে বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সংখ্যা কত তার সঠিক পরিসংখ্যান নেই। 

তবে ২০২০ সালে করা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসেব বলছে, সারাদেশে বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সংখ্যা ১৭ হাজার ২৪৪টি। তবে বাস্তবের এই সংখ্যা প্রায় দ্বিগুন। এর মধ্যে লাইসেন্স রয়েছে মাত্র ৫ হাজার ৫শ ১৯টির।

একাত্তর/ এনএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন