ঢাকা ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯

স্বয়ংক্রিয় নয়, সনাতন পদ্ধতিতেই আদায় হবে পদ্মা সেতুর টোল

নয়ন আদিত্য, মাওয়া থেকে ফিরে
প্রকাশ: ২১ জুন ২০২২ ১৮:২৩:৪০
স্বয়ংক্রিয় নয়, সনাতন পদ্ধতিতেই আদায় হবে পদ্মা সেতুর টোল

আর মাত্র তিন দিনের অপেক্ষা। এরপরই চালু হচ্ছে বাঙালির স্বপ্নপূরণ আর প্রত্যাশার পদ্মা সেতু। উদ্বোধনের পর দিন ২৬ জুন সকাল থেকে টোল দিয়ে যাতায়াত করতে পারবে যানবাহন।  

তবে প্রথম দিন থেকেই স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে টোল আদায় হচ্ছে না। সনাতন পদ্ধতিতেই আদায় করা হবে পদ্মা সেতুর টোল। 

সেতুর প্রকল্প পরিচালক শফিকুল ইসলাম বলছেন, স্বয়ংক্রিয় টোল ব্যবস্থার জন্য যানবাহনেও একটি বিশেষ ডিভাইস যুক্ত থাকতে হয়। যা দেশের বেশিরভাগ যানবাহনেই নেই।

সে কারনেই সনাতন টোল ব্যবস্থা দিয়েই শুরু হচ্ছে পদ্মা সেতুর যাত্রা। তবে কার্ডের মাধ্যমে টোল পরিশোধের ব্যবস্থা থাকছে। 

পদ্মা সেতুর দুই প্রান্তে স্থাপন করা হয়েছে মোট ১৪টি ইলেকট্রনিক টোল কালেকশন বা ইটিসি বুথ। টোল আদায়ের দায়িত্বে থাকা কোরিয়ান এক্সপ্রেসওয়ে এই বুথগুলো বসিয়েছে। 

স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে টোল পরিশোধের জন্য যানবাহনের সামনে লাগাতে হবে একটি রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি আইডেন্টিফিকেশন বা আরএফআইডি কার্ড।

যানবাহনের সামনের অংশের ড্যাশবোর্ডে থাকা ফাস্ট ট্র্যাকের মাধ্যমে সাদা রঙের প্রি-পেইড কার্ডে মাত্র দু-তিন সেকেন্ডেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে টোল কেটে নেয়া হবে। 

প্রাথমিকভাবে দুই প্রান্তে একটি করে মোট দুটিতে চালু থাকছে ইটিসি পদ্ধতি। আর আটটি টোল প্লাজায় টোল আদায় করা হবে ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে। বাকি চারটি চালু হবে পরে।

যদিও পদ্মা সেতুর প্রকল্প পরিচালক শফিকুল ইসলাম বলছেন, সনাতন পদ্ধতিতেই হবে টোল আদায়। ইটিসি পদ্ধতিতে টোল নেবার জন্য প্রতিটি গাড়িতে কার্ড বসাতে হবে। 

যার জন্য পরিবহণ সংশ্লিষ্টদের যুক্ত হতে হবে। যতদিন না গাড়িতে সেই প্রযুক্তি যুক্ত না হচ্ছে ততদিন স্বয়ংক্রিয় টোল আদায় সম্ভব হবে না বলে জানান তিনি। 

পাঁট বছরের জন্য পদ্মা বহুমুখী সেতুর রক্ষণাবেক্ষণ ও টোল আদায়ের দায়িত্ব পেয়েছে যৌথভাবে কোরিয়া এক্সপ্রেসওয়ে কর্পোরেশন ও চীনের মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি লিমিটেড।

একাত্তর/এআর

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন