ঢাকা ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ৯ আশ্বিন ১৪২৯

শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় ফুঁসছে নড়াইলবাসী

আজিজুল ইসলাম, নড়াইল
প্রকাশ: ২৭ জুন ২০২২ ২০:২৪:৩১ আপডেট: ২৭ জুন ২০২২ ২১:০৫:২০
শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় ফুঁসছে নড়াইলবাসী

নড়াইলে পুলিশের সামনে কলেজ অধ্যক্ষকে গলায় জুতার মালা পরানোর ঘটনায় ক্ষোভ গোটা এলাকায়। ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসি।

সেখানকার বিশিষ্ট নাগরিকরা বলছেন, শিক্ষকদের ওপর বারবার এমন ন্যাক্কারজনক আচরণ মেনে নেয়া যায় না। অপরাধে শাস্তি না হওয়ার এ ধরনের অনাচার বাড়ছে। 

এদিকে, নড়াইল ছাড়াও শিক্ষক লাঞ্ছনার প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষকরা। এই ঘটনার বিচারের দাবিতে তারা সড়কে বিক্ষোভও করেছেন।

ঘটনার শুরু ছিলো ১৮ জুন মির্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র রাহুল দেব রায় নিজের ফেসবুক আইডিতে দেয়া এক পোস্ট নিয়ে।

সেই পোস্টে ভারতের বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মার ছবি ব্যবহার করেন তিনি। এ পোস্টকে কেন্দ্র করেই ওঠে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ।

এর জেরেই গুজব ছড়িয়ে পুলিশের উপস্থিতিতেই কলেজটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসের গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। 

শুধু তাই নয়, স্থানীয়রা কলেজ চত্বরে থাকা শিক্ষকদের তিনটি মোটরসাইকেলও পুড়িয়ে দেয়। তখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ লাঠিচার্জসহ কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল ছোঁড়ে।

স্থানীয়রা জানান, ওই ছাত্রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে কলেজ অধ্যক্ষের প্রতি দাবি জানিয়েছিলো অন্যান্য ছাত্ররা। তিনি ব্যবস্থা না নেয়ায় ধর্ম অবমাননার গুজব ছড়িয়ে অধ্যক্ষের গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেয় ছাত্ররা।

তারা আরও অভিযোগ করেন, কলেজের নিয়োগ বাণিজ্য নিয়ে অন্য শিক্ষকের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল শিক্ষক স্বপন কুমার বিশ্বাসের। ওসব শিক্ষকরা সেই বিরোধের শোধ নিলো কি না তাও ভেবে দেখতে বা খতিয়ে দেখতে বলছেন এলাকার লোকজন। 

তবে পুলিশ বলছে, ওইদিন ফেসবুকে পোস্ট দেয়া ছাত্র রাহুল দেব রায়কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। । তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে। বর্তমানে ওই শিক্ষক পুলিশের নিরাপত্তায় পুলিশি হেফাজতে রয়েছে।

এদিকে, এসব ঘটনার তদন্তের জন্য জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে পৃথক দু’টি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ৩০ জুনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে দুই কমিটিকে বলা হয়েছে।


একাত্তর/এআর

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছাদ খোলা অভিবাদন!

ছাদ খোলা অভিবাদন!

৩ দিন ২ ঘন্টা আগে