ঢাকা ১৪ আগষ্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯

স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিনিধি, নওগাঁ
প্রকাশ: ০৫ জুলাই ২০২২ ১৩:৩৪:১০
স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

নওগাঁর নিয়ামতপুরে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী নফির শাহকে (৫৮) যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং তা অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়। 

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-২ এর বিচারক হাসান মাহমুদুল ইসলাম এ রায় ঘোষণা করেন।

এদিকে এ ঘটনায় অপর আসামি নফির শাহের দ্বিতীয় স্ত্রী হেমলতাকে বাওইকে (৪০) খালাস দেয়া হয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্ত নবির শাহ জেলার নিয়ামতপুর উপজেলার রশিদপাড়া গ্রামের মৃত আমির শাহের ছেলে।

মামলা সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ২০১৯ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ১০ টার দিকে নফির শাহ তার বড় স্ত্রী লতিফন ওরফে লুৎফনকে (৫২) ঘরের ভিতর গলা টিপে হত্যা করে। এ ঘটনায় লতিফনের বড় ভাই মো. মোজাম্মেল বাদি হয়ে নিয়ামতপুর থানায় নফির শাহ ও তার ছোট স্ত্রী হেমলতার নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

পরবর্তীতে মামলাটি বিচারের জন্য আদালতে আসলে শুনানি শেষে নফির শাহের বিরুদ্ধে স্ত্রীকে হত্যা প্রমাণিত হওযায় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-২ এর বিচারক হাসান মাহমুদুল ইসলাম হত্যা মামলার আসামি নফির শাহকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেন। একই সাথে ৫০ হাজার অর্থদণ্ড ও তা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। তার দ্বিতীয় স্ত্রীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত না হওযায় তাকে খালাস প্রদান করেন আদালত।

আরও পড়ুন: শিকাগোতে হামলাকারী বয়স ২২, পেশায় ইউটিউবার

এ বিষয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (এপিপি) সামসুর রহমান জানান, এমন একটি রায়ের মাধ্যমে আমাদের সমাজে একটি মেসেজ যাচ্ছে যে, স্ত্রীকে হত্যা বা যে কাউকে হত্যা করলে আইন অনুযায়ী আদালত সঠিক বিচার করে। যারা এমন নেক্কারজনক কাজে লিপ্ত হয় তাদের সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। আমরা মনে করি, এই রায় থেকে অনেকেই শিক্ষা নিবেন। সেই সাথে আদালত ও দেশের আইনের প্রতি মানুষের আস্তা বাড়বে।


একাত্তর/আরবিএস  

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

১ মাস ১২ দিন আগে