ঢাকা ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯

শ্রীমতিকে নামিয়ে দেয়ায় ক্ষেপলেন স্বস্তিকা

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ১৬ জুলাই ২০২২ ২২:১৬:৫৬ আপডেট: ১৬ জুলাই ২০২২ ২৩:২৭:২৫
শ্রীমতিকে নামিয়ে দেয়ায় ক্ষেপলেন স্বস্তিকা

টালিউডের উমা বৌদি আর বিবি হিসাবে খ্যাত স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় এবার এলেন শ্রীমতি হয়ে। এই নামে তার সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে এক সপ্তাহ হলো। কিন্তু দ্বিতীয় সপ্তাহ আসতেই স্বস্তিকার সেই ছবি হল থেকে নামিয়ে দেয়াতে বেজায় চটেছেন এই অভিনেত্রী।

বেশ কিছু দিন ধরে ‘বাংলা ছবিরপাশে দাঁড়ান’- এই হ্যাশ ট্যাগ কিছুদিন আগে পর্যন্ত সামাজিক মাধ্যমে আন্দোলন শুরু করেছিলেন লাস্যময়ী এই অভিনেত্রী। কিন্তু দ্বিতীয় সপ্তাহে না ঢুকতেই ‘শ্রীমতি’ পরে যাওয়ায় এখন নিজের আন্দোলন নিয়ে নিজেই প্রশ্ন করেছেন স্বস্তিকা।

যদি কেউ সাপোর্ট করতেও চায় তাহলে করবে কী ভাবে? এই প্রশ্নই তুলেছেন তিনি। কারণ তাঁর নতুন ছবি ‘শ্রীমতী’ মুক্তি পেয়েছে গত সপ্তাহে। এই ছবির প্রমোশনের জন্য তাকে দেখা গিয়েছে বিভিন্ন জায়গায়। আর দ্বিতীয় সপ্তাহে এসে মুখ থুবড়ে পড়তে চলেছে এই ছবি।


কারণ প্রথম সপ্তাহে ঠিকঠাক হল এবং শো টাইম পেলেও দ্বিতীয় সপ্তাহে এসে ‘শ্রীমতী’ কে দেয়া হয়েছে চারটি হল আর শো টাইম দুপুরে। স্বাভাবিকভাবেই দর্শক নিজের অফিস কিংবা কাজ বাদ দিয়ে সিনেমা দেখতে আসবেন না।

যার কারণে তৃতীয় সপ্তাহ আসতে না আসতেই উঠিয়ে দেয়া হলো এই ছবিটিকে। এই নিয়ে ক্ষুব্ধ স্বস্তিকা। ফেসবুকে একটি লম্বা পোস্ট করে বসলেন তিনি।

স্বস্তিকা লিখলেন, বাংলা ছবি দেখুন, বাংলা ছবিসাপোর্ট করুন কিন্তু কে কীভাবে করবে? ডিসট্রিবিউটার যে ছবি চালাতে চাইবে সেই ছবি চলবে, নতুন প্রোডিউসার হলে তাকে কোন রকম জায়গা দেয়া হবে না, উঠতি ডিরেক্টর হলে তাকে পাত্তা দেয়ার দরকার নেই। আর নারী কেন্দ্রীক ছবি হলে তো প্রথম থেকেই বাদ এর খাতায়।


তিনি আরও বলেন, ভাল সেল হলেও, মানুষ উচ্ছসিত প্রশংসা করলেও, রিভিউ/ফিডব্যাক সব দারুণ হলেও তাতে কি? হল দেয়া হবে না আর দেওয়া হলেও এমন শো টাইম দেয়া হবে যাতে কেউ না যেতে পারে, সেল তলানিতে ঠ্যাকে এবং তৃতীয় সপ্তাহে ছবি উঠিয়ে দেয়া যায়। শ্রীমতীর কপালেও এটাই হলো।

উল্লেখ্য, ১৫ জুলাই শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে ‘কুলের আচার’। নাম না নিলেও এই ছবিকেই ইঙ্গিত করেছেন স্বস্তিকা। যাতে স্বামী আর স্ত্রীর ভূমিকায় রয়েছেন বিক্রম ও মধুমিতা। আর শ্বশুর-শাশুড়িই ন্দ্রাণী হালদার ও সুজন মুখোপাধ্যায়।


একাত্তর/আরবিএস  

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছাদ খোলা অভিবাদন!

ছাদ খোলা অভিবাদন!

১০ দিন ১০ ঘন্টা আগে