ঢাকা ১৮ আগষ্ট ২০২২, ২ ভাদ্র ১৪২৯

ঝালে আর দামে বাজারে এখন কাঁচা মরিচের রাজত্ব

নিজস্ব প্রতিবেদক, একাত্তর
প্রকাশ: ০৫ আগষ্ট ২০২২ ১২:৫৫:৩৬ আপডেট: ০৫ আগষ্ট ২০২২ ১২:৫৭:৪৪
ঝালে আর দামে বাজারে এখন কাঁচা মরিচের রাজত্ব

সয়াবিনের দাম কিছুটা কমলেও পেঁয়াজের পর দ্বিতীয় মশলা-জাতীয় সবজি হিসেবে, দামে ডাবল সেঞ্চুরি’র পর; আরও হাফ সেঞ্চুরি ছুঁয়ে, এখন ট্রিপল সেঞ্চুরির দিকে দৌঁড়াচ্ছে, কাঁচা মরিচ! ব্যবসায়ীরাও বলছেন, সিজন শেষ বিধায়, কাঁচা মরিচের দৌঁড়, থামবে না সহজে! 

ঝালে আর দামে বাজারে এখন যেনো কাঁচা মরিচের রাজত্ব।  দিন পোনেরো আগেই, দাম উঠেছে দুশো। আর এখন সেটা তিনশ ছুঁইছুঁই। 

‘কাঁচা মরিচ’ই এখন ‘কাঁচা বাজারে’ সবচে’ দামি পণ্য। তাইতো দামের কারণে, ‘কাঁচা মরিচ’র সাথে ক্রেতার দূরত্ব বাড়লেও, এই পণ্যের এখন কদর বেড়েছে বিক্রেতার কাছে! 

আরও পড়ুন: চলন্ত বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণ: গ্রেপ্তার আরও দুই

কারওয়ান বাজারের চেয়ে, ‘কাঁচা মরিচ’ আরেকটু বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে রাজধানীর অন্য বাজারগুলোতে। বিক্রেতাদের নিত্য নতুন অজুহাতে যুক্ত হয়েছে নতুন যুক্তি, মৌসুম শেষ। 

ক্রেতারা বলছেন, চাল-ডাল-তেল-মরিচের দামে তাদের এখন ত্রাহী অবস্থা। 

এদিকে, ‘কাঁচা মরিচের’ উত্তাপে, দাম বেড়েছে শুকনা মরিচেরও। সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিতে ৫০ টাকা বেড়ে ইন্ডিয়ান শুকনা মরিচ ৪শ’ ৬০ টাকা আর ইন্দোনেশিয়ান কারেন্ট মরিচ বিক্রি হচ্ছে পাইকারীতেই, ৪শ’ ২০ টাকা কেজি। 

তবে মরিচের দাম বাড়লেও তা নিয়ে, অভিযান কিংবা নজরদারী চোখে পড়েনি বাজারে। 

রাজধানীর মিরপুরের ১১ নম্বর বাজার, মিরপুর কালশী বাজারে প্রতিকেজি শসা বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা, লম্বা বেগুন ৯০ টাকা, গোল বেগুন ৯০ থেকে ১০০ টাকা, টমেটো ১২০ থেকে ১৩০ টাকা, করলা ৭০ থেকে ৯০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৪০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, পটল ৬০ টাকা, ঢেঁড়স ৬০ টাকা, কচুর লতি ৮০ টাকা, পেঁপে ৫০ টাকা, বরবটি ৮০ টাকা, ধুন্দল কেজি ৬০ টাকা। এছাড়া চাল কুমড়া প্রতিপিস ৫০ টাকা, আকারভেদে প্রতিপিস লাউ বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকায়।  

এইসব বাজারে প্রতিকেজি আলু বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকায়। পেঁয়াজের দাম কমেছে। প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকায়। আর একটু ভালো মানের পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকায়। এসব বাজারে প্রতিকেজি দেশি রসুন বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, চায়না রসুন ১৪০ থেকে ১৪৫ টাকা। এছাড়া আদার কেজি বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১০০ টাকায়।  

কারওয়ান বাজারের সবজির বাজার ঘুরে দেখা গেছে, গাজরের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১২০-১৩০ টাকায়, যা গত সপ্তাহে ছিল ১৩০-১৪০ টাকা। গাজরের দাম কিছুটা কমলেও পাকা টমেটো গত সপ্তাহের মতো কেজিপ্রতি ৮০-১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

টমেটোর মতো দাম অপরিবর্তিত রয়েছে বরবটির। এক কেজি বরবটি ৭০-৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। শসার কেজি গত সপ্তাহের মতো ৪০-৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া বেগুনের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০-৭০ টাকা, কাঁকরোল ৫০-৭০ টাকা কেজি, কাঁচা পেঁপে কেজি ২০-২৫ টাকা, আর পটল ২০-৩০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। সপ্তাহের ব্যবধানে এ সবজিগুলোর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এই বাজারে দাম অপরিবর্তিত থাকার তালিকায় রয়েছে করলা, কচুর লতি, ঝিঙে, চিচিঙ্গা। এসব সবজি ৪০-৫০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। আর কচুর লতি ৪০-৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। ঝিঙে, চিচিঙ্গার কেজিও ৪০-৫০ টাকার মধ্যে আছে। কাঁচা কলার হালি বিক্রি হচ্ছে ৩০-৪০ টাকায়।


একাত্তর/এআর

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

১ মাস ১৬ দিন আগে