ঢাকা ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

বিচ্ছেদের পর ফের বিয়ের দাবি, রাজি না হওয়ায় শাশুড়িকে হত্যা

নিজস্ব প্রতিনিধি, সাতক্ষীরা
প্রকাশ: ১৭ জুলাই ২০২১ ১৫:২৩:৩০ আপডেট: ১৭ জুলাই ২০২১ ১৫:২৫:১৪
বিচ্ছেদের পর ফের বিয়ের দাবি, রাজি না হওয়ায় শাশুড়িকে হত্যা

সাতক্ষীরায় জামাতা মাতিন সরদার ওরফে লতিফ সরদারের ছুরিকাঘাতে নিহত হয়েছেন শাশুড়ি মোমেলা খাতুন। একইসঙ্গে ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন স্ত্রী ফাতেমা খাতুন। 

শুক্রবার (১৬ জুলাই) গভীর রাতে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঘোনা ইউনিয়নের ছনকা তালসারি গ্রামে এই ঘটনাটি ঘটে। 

মাতিন সদর উপজেলার পায়রাডাঙ্গা গ্রামের নেসার উদ্দীনের ছেলে। এ ঘটনায় মাতিনকে আটক করেছে পুলিশ। আর চিকিৎসার জন্য ফাতেমাকে শহরের বুশরা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা যায়, মাতিনের সঙ্গে ফাতেমার বিয়ে হয় প্রায় ১৭ বছর আগে। তাদের ঘরে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে এক মাস আগে তাদের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা ঘটে। এরপর থেকে ফাতেমা তার পিতা গোলাম হোসেনের বাড়িতে অবস্থান করছেন। 

আরও পড়ুন: নিউইয়র্কের বিলবোর্ডে দেখা যাবে বঙ্গবন্ধুর জীবনী

মাতিনের শ্বশুর গোলাম হোসেন জানান, সম্প্রতি মাতিন আবারও ফাতেমাকে বিয়ে করার জন্য চাপ দিতে থাকে। কিন্তু ফাতেমার মা পুনরায় বিয়েতে রাজি ছিলেন না। এনিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছিল। শুক্রবার রাতে মাতিন তাদের বাড়িতে আসে। 

মাতিন গভীর রাতে সুযোগ বুঝে ফাতেমার তলপেটে ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে। মেয়েকে বাঁচাতে এলে মাতিন শাশুড়ি মোমেনাকেও ছুরিকাঘাত করেন। এতে মোমেনা মারা যান। 

এবিষয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হুসেন জানান, মোমেনার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠনো হয়েছে। এ ঘটনায় মোমেনার জামাতা মাতিনকে সদরের মৃগিডাঙ্গা এলাকা থেকে আটক করা হয়েছে। 

জানা যায়, নিহত মোমেনা খাতুনের ছেলে ফিরোজ হোসেন থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। 


একাত্তর/আরএইচ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন