ঢাকা ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮

পেগাসাস নিয়ে বিপাকে ইসরাইলের সরকারও

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ১৯ জুলাই ২০২১ ২২:৪৪:৫৬ আপডেট: ১৯ জুলাই ২০২১ ২২:৫৩:৪৯
পেগাসাস নিয়ে বিপাকে ইসরাইলের সরকারও

পেগাসাস। ইসরাইলের তৈরি একটি স্পাইওয়্যার। যা দিয়ে যে কারো ফোনে আড়িপাতা যায়। আর এই পেগাসাস সফটওয়্যারটি ব্যবহার করছে বিশ্বের ৪৫টি দেশ। সেই তালিকায় আছে ভারতসহ এশিয়ার অনেক দেশের নাম।

স্পাইওয়্যারটি দিয়ে মানবাধিকারকর্মী, সাংবাদিক, আইনজীবী থেকে শুরু করে রাজনীতিকদের ফোনে আড়ি পাতে বিভিন্ন দেশের সরকার। রোববার (১৮ জুলাই) এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন ছেপেছে ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানসহ ১৭টি সংবাদপত্র।

এসব প্রতিবেদনে উঠে এসেছে পেগাসাস ব্যবহার করে আড়িপাতার সব তথ্য। এনিয়ে বিভিন্ন দেশে হৈ চৈ শুরু হবার পর নড়েচড়ে বসেছে ইসরাইলও।

সোমবার (১৯ জুলাই) ইসরাইলের ক্ষমতাসীন জোট সরকারের একটি উদারপন্থী দল জানিয়েছেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পেগাসাস স্পাইওয়্যার রপ্তানি এবং বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদন সম্পর্কে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে জানতে চাওয়া হবে।  

ইসরাইলের ক্ষমতাসীন জোটের মেরেৎজ পার্টির প্রধান এবং দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী নিতজান হোরোউইৎজ সাংবাদিকদের জানান, পেগাসাস স্পাইওয়্যারের বিষয়ে জানতে আগামী বৃহস্পতিবার তিনি প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গানৎটজের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

তবে, এনিয়ে ইসরাইলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় আনুষ্ঠানিক কোন প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

গার্ডিয়ানসহ বিভিন্ন সংবাদপত্রের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পেগাসাস দিয়ে সাংবাদিক, সরকারি কর্মকর্তা এবং মানবাধিকারকর্মী এমন ৩৭ জনের স্মার্টফোন সফলতার সঙ্গে হ্যাক করা হয়েছে।

তবে এসব খবরের সত্যতা অস্বীকার করে ইসরাইলি প্রতিষ্ঠান এনএসও গ্রুপ জানিয়েছে, তাদের তৈরি পেগাসাস স্পাইওয়্যার শুধুমাত্র সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে ব্যবহার করার জন্য বিভিন্ন দেশের সরকারের আইনশৃংখলা বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার কাছে বিক্রি করা হয়েছে।

এদিকে, পেগাসাস নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের পর ইসরাইলের ক্ষমতাসীন জোটের বিভিন্ন নেতারা তীব্র ক্ষোভ জানান এবং শিগগিরই এটি রপ্তানি স্থগিত করার দাবি জানিয়েছেন।


ছবি: বিবিসি 


একাত্তর/এসজে 

 

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন