ঢাকা ১৯ সেপ্টেম্বার ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

শেষ শ্রদ্ধা জানাতে শহীদ মিনারে ফকির আলমগীরের মরদেহ

নিজস্ব প্রতিবেদক, একাত্তর
প্রকাশ: ২৪ জুলাই ২০২১ ১৩:০৭:০৩ আপডেট: ২৪ জুলাই ২০২১ ১৩:৩৪:০৩
শেষ শ্রদ্ধা জানাতে শহীদ মিনারে ফকির আলমগীরের মরদেহ

সর্বস্তরের মানুষের শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয়েছে একাত্তরের কণ্ঠযোদ্ধা ও গণসংগীত শিল্পী ফকির আলমগীরের মরদেহ। 

শনিবার (২৪ জুলাই) সকাল ১১টায় খিলগাঁওয়ের পল্লীমা সংসদ মাঠে ফকির আলমগীরের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে এই বীর মুক্তিযোদ্ধাকে দেওয়া হয় গার্ড অব অনার।  

ফকির আলমগীরের পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, জোহরের পর তার দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হবে খিলগাঁও মাটির মসজিদে। পরে তালতলা কবরাস্থানে তাকে সমাহিত করা হবে।  

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শুক্রবার (২৩ জুলাই) রাত ১০টা ৫৬ মিনিটে গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় এই মহান গণসংগীত শিল্পীর। 

তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শোক জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকসহ অন্যান্যরা।

আরও পড়ুন: কমছে ফাইজার টিকার কার্যকারিতা: ইসরাইল

১৯৫০ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি ফরিদপুরের ভাঙ্গা থানার কালামৃধা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন ফকির আলমগীর। তার পিতা মোঃ হাচেন উদ্দিন ফকির, মা বেগম হাবিবুন্নেছা। ফকির আলমগীর কালামৃধা গোবিন্দ হাই স্কুল থেকে ১৯৬৬ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে জগন্নাথ কলেজে ভর্তি হন। জগন্নাথ কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রী নিয়ে পরবর্তী পর্যায়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় এমএ পাস করেন।  

ষাটের দশকে যুক্ত হন গণসংগীতের দলে। অংশ নেন ১৯৬৯-এর গণঅভ্যুত্থানে। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে তিনি যোগ দেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে। সংগীতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ১৯৯৯ সালে পান একুশে পদক।


একাত্তর/আরবিএস

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন