ঢাকা ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

'আক্ষেপ' নিয়েই চলে গেলেন ফকির আলমগীর

রাশেদ আনিস
প্রকাশ: ২৪ জুলাই ২০২১ ১৪:৪৪:৩৭ আপডেট: ২৪ জুলাই ২০২১ ১৭:০৩:০৬
'আক্ষেপ' নিয়েই চলে গেলেন ফকির আলমগীর

অনেকটা আক্ষেপ নিয়েই ওপারে পাড়ি জমালেন একুশে পদক প্রাপ্ত গণমানুষের শিল্পী ফকির আলমগীর। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে সাংস্কৃতিক অঙ্গণে। জীবনদশায় বহুবার চেষ্টা করেও স্বাধীনতা পদক পাননি এ গুণী শিল্পী। 

শুক্রবার (২৩ জুলাই) রাত ১০ টা ৫৮ মিনিটে সেই আক্ষেপ নিয়েই করোনার সাথে লড়াই করে হেরে যান ফকির আলমগীর। তার মৃত্যুর পর তাই পরিবারের সদস্যদের অনুরোধ, তাকে মরণোত্তর স্বাধীনতা পদক দেওয়ার। 

একাত্তরের কন্ঠযোদ্ধা, অসংখ্য গানের কারিগর গণসঙ্গীত শিল্পী ফকির আলমগীরের গান দেশের স্বাধীনতাসহ যেকোনো সংকটে হাতিয়ার হিসেবে কাজ করেছে।

দেশের মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্যে শনিবার (২৪ জুলাই) সকাল ১০ টা ৫৫ মিনিটে তাকে দেয়া হয় গার্ড অব অনার। রাষ্ট্রীয় সম্মাননা শেষে তাঁর প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

আরও পড়ুন: করোনায় মারা গেলেন গণসংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর

এরপর বৃষ্টিস্নাত দিনে দুপুর ১২ টা ১৫ মিনিটে তার মরদেহ সর্বসাধারনের শ্রদ্ধার জন্যে শহীদমিনার প্রাঙ্গণে নিয়ে যাওয়া হয়। তার এই অভাব সংস্কৃতি অঙ্গণে কখনোই পূরণ হবার নয়।

খিলগাঁও মাটির মসজিদে হয় তাঁর দ্বিতীয় জানাজা। এরপর তাকে খিলগাঁও তালতলা কবরাস্থানে দাফন করা হয়।

পরিবারের মানুষের কাছে তিনি ছিলেন বন্ধুসুলভ। পরিবারের সদস্যরা জানান, তার শেষ ইচ্ছা ছিলো স্বাধীনতা পদক পাবার, তাই প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করেছেন তাকে যেন মরণোত্তর স্বাধীনতা পদক দেয়া হয়।

ফকির আলমগীর ছিলেন নির্যাতিত মানুষদের শিল্পী। তার কালজয়ী গানের মাধ্যমে আজীবন তিনি থাকবেন মানুষের অন্তরে।


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন