ঢাকা ২০ সেপ্টেম্বার ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

৮০ ভাগ মানুষকে টিকার আওতায় আনা হবে: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, একাত্তর
প্রকাশ: ২৭ জুলাই ২০২১ ২০:৩৪:৩০ আপডেট: ২৭ জুলাই ২০২১ ২২:৩৮:১৫
৮০ ভাগ মানুষকে টিকার আওতায় আনা হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুযায়ী দেশের ৮০ ভাগ মানুষকে করোনা টিকার আওতায় আনতে কাজ করছে সরকার। 

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) বিকেলে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর আলোচনা সভার প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি একথা জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, 'ভ্যাকসিন যেখানে যা পাওয়া যাচ্ছে আমরা ক্রয় করছি। তার জন্য আলাদা টাকাও রাখা আছে। প্রয়োজনে আরো টাকাও আমরা খরচ করবো'। 

ইতোমধ্যে বাংলাদেশে এক কোটি ৮৭ লাখের মত ভ্যাকসিন দেওয়া হয়ে গেছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'গ্রাম পর্যায়ে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা আমরা নিচ্ছি। আইডি কার্ড দেখিয়ে সরাসরি নিবন্ধন করে সেখানেই টিকা নিতে পারবে। সেই ব্যবস্থাও আমরা করছি'। 

এই কার্যক্রমে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা-কর্মীদের মানুষকে সাহায্য এবং সহযোগিতা করার আহ্বান জানানও আওয়ামী লীগ নেত্রী। 

তিনি বলেন, 'মানুষের মধ্যে টিকা নিয়ে অতীতে নানারকম ভীতি ছিল। টিকা নিলে কি না কি হয়ে যাবে। এখন সবাই সে ভীতি কাটালেও একটা সমস্যা এখনও আছে। যেটা আমি মাঝে মাঝে খবর পাই, কেউ করোনা পরীক্ষা করাতে চায় না। তাদের ধারনা টেস্ট করলে করোনা আছে শুনলে সে অচ্ছুত হয়ে যাবে তার সঙ্গে কেউ মিশবে না, এই ভয়টা করে। কিন্তু এটাতো ঠিক নয়'।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি আরো বলেন, 'করোনা টেস্ট নিয়ে গ্রামের মানুষের মনে যে ভীতি সেটা দূর করতে এবং টিকা প্রদানে উৎসাহিত করতে কাজ করতে হবে'।

আরও পড়ুন: ‘বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি দেখছে গোটা বিশ্ব’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'টেস্ট করলে তার যে চিকিৎসাটা হবে, সে যে ভাল হবে বা সে অন্য কাউকে সংক্রমিত করবে না এবং নিজে বাঁচবে অন্যকেও বাঁচাবে- এই ধারণাটা মানুষের মধ্যে দিতে হবে। এটা আমাদের নেতা-কর্মীরা যে যেখানে আছে তাদের বলে দেওয়া যাতে সাধারণ মানুষের কাছে বার্তাটা পৌঁছে যায়'।


একাত্তর/আরবিএস 

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন