ঢাকা ১৯ সেপ্টেম্বার ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

রাজকে দেখেই কান্নায় ভেঙ্গে পড়লেন শিল্পা শেঠি

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ২৭ জুলাই ২০২১ ২১:৩০:৫৪ আপডেট: ২৭ জুলাই ২০২১ ২৩:৫১:৩৭
রাজকে দেখেই কান্নায় ভেঙ্গে পড়লেন শিল্পা শেঠি

ভারতে পর্ন কেলেংকারিতে গ্রেপ্তার ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রাকে নিয়ে তাঁর বাড়ি তল্লাশিতে এসেছিলো মুম্বাইয়ের পুলিশ। আর রাজকে দেখেই কান্নায় ভেঙ্গে পড়লেন অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি।

মুম্বাই পুলিশ সুত্র জানিয়েছে, গেল সপ্তাহে গ্রেপ্তার হবার পর প্রথমবারের মতো রাজ কুন্দ্রাকে তার বাড়িতে নেয়া হয়। আর তাকে দেখেই চিৎকার করে উঠেন তার স্ত্রী শিল্পা শেঠি।

এ সময় তিনি স্বামীর দিকে তাকিয়ে বলে উঠেন, ‘আমার তো সব কিছুই ছিলো। এই সব করা কি দরকার ছিলো তোমার’।

শুক্রবার রাতে মুম্বাইয়ে শিল্পা-রাজের বিলাসবহুল বাড়িতে অভিযান চালায় মুম্বাই পুলিশের বিশেষ বিভাগের সদস্যরা। এ সময়ই রাজের মুখোমুখি হন শিল্পা শেঠি।

পর্ন ছবি তৈরি, প্রচার এবং পাচারের অভিযোগে দায়ের করা এক মামলায় গত সোমবার রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেপ্তার করে মুম্বাই পুলিশ। বর্তমানে তিনি ১৫ দিনের রিমান্ডে রয়েছেন।


মুম্বাইয়ের অভিজাত এলাকায় বাংলো স্টাইলের বাড়িতে তল্লাশির সময় পুলিশ শিল্প শেঠির একটি জবানবন্দিও রেকর্ড করে।

এর আগে শিল্পা শেঠি রাগে ক্ষোভে নিজেকে সামাল দিতে না পেরে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তিনি জানান, রাজের কাণ্ডে তার ও পরিবারের মান-সম্মান সব ধুলিসাৎ হয়ে গেছে। শুধু তাই নয়, এই ঘটনার পর শিল্পা আর্থিকভাবেও অনেক ক্ষতির মুখে পড়েছেন। বিভিন্ন চুক্তি বাতিল হয়ে গেছে।

গেল বছর রাজ কুন্দ্রার ভিয়ার ইন্ড্রাসট্রিজের পরিচালক পদ থেকে শিল্পা শেঠি কেন নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছিলেন, এই বিষয়ে তদন্ত করছে মুম্বাই পুলিশ। তবে পুলিশের সূত্র বলছে, রাজের পর্ন কারবারের সঙ্গে শিল্পার জড়িত থাকার কোন প্রমাণ এখনও পাওয়া যায়নি।

এর আগে, মুম্বাইয়ের পুলিশকে রাজের কর্মচারিরা জানিয়েছেন, গ্রেপ্তার হবার আগে রাজ কুন্দ্রা মোবাইল ফোন থেকে সব ধরনের পর্ন চিত্র ও ভিডিও মুছে ফেলতে তাদের নির্দেশ দেন।

এই চার কর্মচারী রাজ কুন্দ্রার কথিত পর্ন কারবারের সঙ্গে সরাসরি জড়িত ছিলেন এবং পর্ন ভিডিও ও চিত্র আদান-প্রদানের কাজে নিয়োজিত ছিলেন। এই চার কর্মচারি এখন রাজের বিরুদ্ধে মামলায় সাক্ষী হচ্ছেন। 


একাত্তর/এসএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন