ঢাকা ১৯ সেপ্টেম্বার ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

কুড়িগ্রামে একই পরিবারের ৭ জনসহ ৯ রোহিঙ্গা আটক

নিজস্ব প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম
প্রকাশ: ২৯ জুলাই ২০২১ ১২:৫৯:১০
কুড়িগ্রামে একই পরিবারের ৭ জনসহ ৯ রোহিঙ্গা আটক

রোহিঙ্গা শিবির থেকে পালানো একই পরিবারের সাতজনসহ মোট নয়জন রোহিঙ্গাকে আটক করেছে কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার ভ্রাম্যমান আদালত। পরে তাদেরকে ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়।

বুধবার (২৯ জুলাই) রাত ৮টার দিকে উপজেলার শিলখুড়ি থেকে তাদের আটক করা হয়। এরমধ্যে রয়েছে চারজন শিশু, দুইজন কিশোর, একজন কিশোরী, একজন পুরুষ এবং একজন নারী। 

ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট উপজেলার সহকারি ভূমি কমিশনার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, করোনার মহামারি রোধে সরকারের দেওয়া লকডাউন বাস্তবায়ন করার জন্য নিয়মিত ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার শিলখুড়ি ইউনিয়নের কাচুর মোড়ে একটি ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সাতে গাঁদাগাদি করে যাত্রী নিয়ে যাচ্ছে। এসময় তাদের থামানো হলে অটোরিক্সা থেকে দুইজন যাত্রী নেমে পালিয়ে যায়। 

জাহাঙ্গীর আলম আরও বলেন, অটোতে চালকসহ মোট ১২জন যাত্রী ছিল। এদের মধ্যে দুইজন পালিয়ে যাওয়ায় দশজনকে আটক করা হয়। তাদেরকে জিজ্ঞাসা করা হলে যাত্রীরা স্বীকার করেন তারা রোহিঙ্গা। সলিম মিয়া নামে এক ব্যক্তির মাধ্যমে তারা সীমান্ত পেরিয়ে ভারত যাবার জন্য দুইদিন আগে ভূরুঙ্গামারী এসেছেন। পরে রাত ৯টার দিকে তাদেরকে আটক করে পুলিশের নিকট সোপর্দ করা হয়। 

আরও পড়ুণ: মন্ত্রিপরিষদ সচিবের সঙ্গ বৈঠকে বিজিএমইএ নেতারা

ভূরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন বলেন, কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে তারা এসেছেন। এদের মধ্যে একই পরিবারের সাতজনসহ মোট নয়জনকে পুলিশ ও ভ্রাম্যমান আদালত আটক করেছেন। আটককৃতরা হলেন, ফইয়া সালাম (২৭), ইসমাইল হোসেন (১৮), সাবিকা খাতুন (৫০) ও তার ছেলে নাছিম (১৫), রিয়াজ (১০),আছমিরা খাতুন (১৮), তাছমিনারা খাতুন (৭), রুমাজান খাতুন (৫) এবং ইসমাইল হোসেন (৩)।  তাদেরকে সংশ্লিষ্ট রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাঠানোর ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধিন রয়েছে। 

           

একাত্তর/আরবিএস  

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন