ঢাকা ১৯ সেপ্টেম্বার ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

কদমতলীতে গার্মেন্টসকর্মী গণধর্ষণ: গ্রেপ্তার ২

নিজস্ব প্রতিনিধি, যাত্রাবাড়ী
প্রকাশ: ২৯ জুলাই ২০২১ ১৩:০৫:১৩
কদমতলীতে গার্মেন্টসকর্মী গণধর্ষণ: গ্রেপ্তার ২

রাজধানীর কদমতলী এলাকার মুরাদপুরে এক গার্মেন্টস কর্মীকে গণধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পলাতক রয়েছেন আরও চার আসামি। গ্রেপ্তারকৃত আসামীরা হলেন মোঃ মেহেদী হাসান (১৯) ও মোঃ সোহাগ হোসেন (২০)।

কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল উদ্দিন একাত্তরকে জানান, ১৯ বছর বয়সী ওই গার্মেন্টস কর্মী যাত্রাবাড়ী এলাকায় থাকেন। এলাকারই একটি গার্মেন্টসে চাকরি করেন তিনি। গত মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সন্ধ্যায় আকাশ (২০) নামে পূর্ব পরিচিত এক যুবক মুঠোফোনে ফোন করে তাকে ঘর থেকে বের করে আনেন। এরপর তাকে নিয়ে যান মুরাদপুরের একটি বাড়ির ছাদে। সেখানে তাকে সংঘবদ্ধভাবে গণধর্ষণ করে আসামীরা। 

ঘটনার পরপরই ৯৯৯ নম্বরে কল পেয়ে রাতেই ভিকটিমকে উদ্ধার করে পুলিশ এবং ঘটনাস্থল থেকে দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে ভিকটিম নিজেই বাদী হয়ে ৬ জনের নামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/০৩) এর ৯ (৩) ধারায় গণধর্ষণের মামলা দায়ের করেন। 

কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞসাবাদে আসামীরা ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। ঘটনার বিস্তারিত তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। বাকি ৪ আসামি পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সজীব দে একাত্তরকে বলেন, বুধবার (২৮ জুলাই) দিনগত মধ্যরাতে ওই গার্মেন্টস কর্মীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) পাঠানো হয়। আসামীদেরকে কোর্টে চালান করা হয়েছে।


একাত্তর/এআর

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন