ঢাকা ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

শ্রমিকদের স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে মালিকরা উদাসীন

নিজস্ব প্রতিবেদক, নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশ: ০১ আগষ্ট ২০২১ ১৪:০৩:০৮ আপডেট: ০২ আগষ্ট ২০২১ ১০:২১:৫৪
শ্রমিকদের স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে মালিকরা উদাসীন

নারায়ণগঞ্জের বেশিরভাগ গার্মেন্টস কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে উদাসীন। আজ রোববার (১ আগস্ট) কাজ যোগদানের প্রথমদিনে ফতুল্লার বিসিক নগরীতে লাখ লাখ শ্রমিক কাজে যোগ দেয় গাদাগাদি করে দল বেঁধে।

সরেজমিনে দেখা যায়, প্রায় ৫০ ভাগ শ্রমিকেরই মুখে মাস্ক ছিলোনা যাতায়াতের সময়। যাদের মুখে মাস্ক ছিলো তাদের মধ্যে অনেকেই আবার তা ঝুলিয়ে রেখেছিলেন থুতনিতে। বড় দুই-একটি গার্মেন্টসে স্বাস্থ্যবিধি মানানোর তৎপরতা দেখা গেলেও অধিকাংশে কোনো ধরনের পদক্ষেপ নজরে আসেনি।

শ্রমিকদের অভিযোগ, তাদের রোববার থেকেই কাজে যোগদানের জন্য নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। যথাযথ সময়ে যোগ না দিলে ‘চাকরি থাকবেনা’, বলেও হুমকি দেয়া হয়েছে তাদের।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে একাধিক গার্মেন্টস মালিক কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

গার্মেন্টস মালিক ও বিকেএমইএ এর সদস্য রঞ্জিত কুমার বর্মণ দাবি করেন, নিয়ম মেনে কারখানা পরিচালনা করছেন তারা। তিনি দাবি করেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজের মাধ্যমেই অর্থনীতির চাকা সচলে ভূমিকা রাখছে কারখানাগুলো।

এদিকে পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএ’র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিধিনিষেধ পুরোপুরি প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত গ্রামে অবস্থানরত পোশাক-শ্রমিক-কর্মচারীরা কারখানায় কাজে যোগদান করতে না পারলে তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে না।

আরও পড়ুন: পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ১৬ ফেরি নিয়ে চলাচল স্বাভাবিক

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে গত ২৩ জুলাই থেকে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার। যা চলবে ৫ আগস্ট পর্যন্ত। বিধিনিষেধ চলাকালে দেশের সব শিল্প-কারখানা বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল।

তবে ঈদের পর থেকেই কারখানা খোলার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়ে আসছিলেন শিল্প-কারখানার মালিকরা। ওই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার (৩০ জুলাই) গার্মেন্টসসহ রপ্তানি-মুখী শিল্প-কারখানা স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলার সিদ্ধান্ত নেয় মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ।


একাত্তর/আরএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন