ঢাকা ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

যমুনা নদী তীরের বাঁধ ধসে পরায় আতংকে ধুনটের মানুষ

শাহজাহান আলী, বগুড়া
প্রকাশ: ০৮ আগষ্ট ২০২১ ১৭:০৬:০১
যমুনা নদী তীরের বাঁধ ধসে পরায় আতংকে ধুনটের মানুষ

বগুড়ার ধুনটে যমুনার ভাঙনে বানিয়াজান স্পার বাঁধের প্রায় ২০ মিটারঅংশ ধসে গেছে। এতে আতংকিত হয়ে পড়েছেন ওই এলাকার মানুষ। দ্রুত বাঁধ মেরামত করা না গেলে বড় ক্ষতির আশংকা করছেন তারা। তলিয়েযেতে পারে জনপদ, বসতভিটা ও ফসলের ক্ষেত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে হঠাৎ করেই ধুনটের বানিয়াজান স্পার বাঁধের একটিঅংশে বালি এবং কংক্রিট ধসে পড়তে শুরু করে। পানির ধাক্কায় ভেঙে যায় প্রায় ২০ মিটার এলাকা। আকস্মিক এই ভাঙনে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন এলাকার মানুষ। ঘরবাড়ি হারাবার ভয়েদিন কাটছে তাদের। তারা বলছেন, বাঁধটি দ্রুত মেরামত করা না গেলে ব্যাপক ক্ষতির আশংকারয়েছে।

ভান্ডারবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুল করিম বলেন, জরুরিভাবেভাঙনের স্থান মেরামত না করা হলে স্রোতে সম্পূর্ণ অংশই নদীতে বিলীন হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।ভাঙনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল ঘুরে দেখেছেন খবর পেয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্যহাবিবর রহমান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার মহন্ত।

বগুড়া পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, নদীর স্পারের প্রায় ২০ মিটার অংশভেঙে বিলীন হয়ে গেছে। এরিমধ্যে ভাঙনের স্থান মেরামতের কাজ শুরু করা হয়েছে। প্রতিবছর ভয়াবহ ভাঙনে যমুনা নদী তীরে গ্রামের বসতভিটা, আবাদি জমি,রাস্তা ও প্রতিষ্ঠানসহ অনেক অবকাঠামো নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

এ কারণে ২০০৩ সালে বগুড়া পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) যমুনা নদীর বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধ রক্ষায় প্রায় ১১ কোটি টাকা ব্যয়ে বানিয়াজান গ্রামের কাছে একটি স্পারনির্মাণ করে।


একাত্তর/ এনএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন