ঢাকা ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮

দৌলতদিয়ায় পদ্মার পানি ৭৭ সে. মি ওপরে, ত্রাণে অনিয়মের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি, রাজবাড়ী
প্রকাশ: ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১২:১৬:১২
দৌলতদিয়ায় পদ্মার পানি ৭৭ সে. মি ওপরে, ত্রাণে অনিয়মের অভিযোগ

পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় গত ২৪ ঘণ্টায় রাজবাড়ী দৌলতদিয়া পয়েন্টে পানি তিন সেন্টিমিটার বেড়েছে। ওই পয়েন্টে নদীটির পানি এখন এখন বিপৎসীমার ৭৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

রোববার (৫ আগস্ট) এ তথ্য জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ড রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া পয়েন্টের পানি পরিমাপক ইদ্রিস আলী।

এদিকে জেলা প্রশাসনের সূত্র জানিয়েছে, ইতিমধ্যে জেলার নদী তীরবর্তী ১৩টি ইউনিয়নের ৬৭টি গ্রামে পানি প্রবেশ করেছে। এতে পানিবন্দি হয়ে পরেছে ১০ হাজার পরিবারের অন্তত ৩০ হাজার মানুষ। 

নতুন করে প্লাবিত হওয়া বেতকা, রাখালগাছি, দেবোগ্রাম, চর দৌলতদিয়া, হরিনবাড়িয়াসহ বেশ কয়েকটি এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, এলাকাগুলোর বেশির ভাগ মানুষের ঘরে ও বাড়ির উঠানে পানি। প্রায় এক মাস যাবত পানিবন্দি মানুষগুলোর কারো ঘরে খাবার আছে, আবার কারো নেই। দুশ্চিন্তার ছাপ স্পষ্ট তাদের চোখেমুখে।


পানিবন্দি রাখালগাছি এলাকার কৃষক আব্দুল হক মণ্ডল বলেন, এক মাস যাবত পানিবন্দি থেকেও কোনো প্রকার সাহায্য-সহযোগিতা তো দূরের কথা, কোনো জনপ্রতিনিধির দেখা মেলেনি!

অপর এক কৃষক হারুন অর রশিদ খাঁ বলেন, সবচেয়ে বেশি কষ্ট হচ্ছে গো খাদ্যের। কৃষি নির্ভর এই এলাকার প্রায় প্রত্যেকের বাড়িতেই দুই থেকে তিনটি গরু রয়েছে। 

আরও পড়ুন: আজ মহারণ: বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা মুখোমুখি

চর মৌকুড়ি এলাকার কৃষক বাবুল হোসেন বলেন, সরকারিভাবে আমাদের এই এলাকায় ১০ কেজি করে চাল দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। কেউ পেয়েছে, আবার কেউ পায়নি। যারা পেয়েছে ১০ কেজি নয়, বালতি দিয়ে মেপে দেওয়া হয়েছে। বালতি দিয়ে মাপা সেই চাল সর্বোচ্চ সাত কেজি ছিল দাবি করে তিন প্রশ্ন রাখেন, বাকি তিন কেজি চাল কোথায়? 

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মো. আরিফুল হক জানান, পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে পানিবন্দি মানুষের সংখ্যাও। তবে জেলায় ১০ হাজার মানুষের তালিকা অনুযায়ী ১০ মেট্টিক টন চাল ও দুই লাখ টাকা নগদ প্রদান করা হয়েছে। ধারনা করা যাচ্ছে, এখনও জেলার নদী তীরবর্তী ১৩টি ইউনিয়নের ৬৭টি গ্রামে অন্তত ৩০ হাজার মানুষ পানিবন্দি আছেন।

একাত্তর/এসি 

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন