ঢাকা ১৯ সেপ্টেম্বার ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

গয়নার বিজ্ঞাপনে সমতার বার্তা

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ০৭ সেপ্টেম্বার ২০২১ ১২:৩৩:৩১ আপডেট: ০৭ সেপ্টেম্বার ২০২১ ১৪:২১:৪৬
গয়নার বিজ্ঞাপনে সমতার বার্তা

সমাজের সবচেয়ে অবহেলিত জনগোষ্ঠীর মধ্যে অন্যতম হলো রুপান্তরিত লিঙ্গের জনগণ। প্রচলিত বিভিন্ন ধ্যানধারণা ও কুসংস্কারের ফলে তারা মূল স্রোতের অনেকটা বাইরেই রয়ে গেছেন। মিডিয়াতেও তাদের উপস্থিতি প্রায় নেই বললেই চলে, আর থাকলেও তা হয় ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপ মেশানো অপমানের ছলে। 

তবে সম্প্রতি তাদের নিয়ে ভারতে নির্মিত একটি গয়নার বিজ্ঞাপন দর্শকদের মন ছুঁয়ে গেছে। কেরালার গয়না তৈরিকারী প্রতিষ্ঠান 'ভীম জুয়েলার্স' এর জন্য বিজ্ঞাপনটি তৈরি করেছে তাদের মার্কেটিং বিভাগ। 

এক মিনিট ৪০ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে দেখা যায় রুপান্তরিত লিঙ্গের এক নারীর রুপান্তরের গল্প। কীভাবে পুরুষ থেকে নারীতে তার পরিবর্তনের যাত্রায় তার পরিবারের সদস্যরা তাকে সমর্থন করে যায়। আর এই যাত্রায় উপহার হিসেবে তাকে দেয়া হয় ভীম জুয়েলার্সের গয়না। মূলত ওই নারীর প্রতি সমর্থনের প্রতীক হিসেবেই গয়নাকে তুলে ধরা হয়েছে। 


ছবি: বিজ্ঞাপনের অংশবিশেষ


গয়নার বিজ্ঞাপনে সবসময় বিষমকামী নারী বধূদের দেখানো হলেও, 'ভালোবাসার মতো পবিত্র' নামের এই বিজ্ঞাপন দিয়ে সেই প্রথা ভাঙ্গার চেষ্টা করা হয়েছে। আর তাতেই মুগ্ধ হয়েছেন লাখো দর্শক। ইতোমধ্যে বিজ্ঞাপনটি ইউটিউবে ৯ লাখেরও বেশি, আর ইন্সটাগ্রামে ১৪ লাখের বেশি বার দেখা হয়েছে। সমাজে লিঙ্গ সমতা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে এই বিজ্ঞাপন নতুন বার্তা পৌঁছাবে বলে আশা করছেন নির্মাতা ও ভীম জুয়েলার্স কর্তৃপক্ষ। 

এই বিজ্ঞাপনের মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন মীরা সিংঘানিয়া রেহানি। সত্যিকার জীবনেও তিনি একজন রুপান্তরিত লিঙ্গের নারী। 


ছবি: মীরা সিংঘানিয়া রেহানি


প্রথমবার তাকে যখন এই বিজ্ঞাপন করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিলো তখন বেশ দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগছিলেন মীরা। বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে তার রুপান্তরের পরিচয় ব্যবহার করা হোক তা তিনি চাননি। তবে, গল্পটি পড়ার পর আর পরিচালকের সম্পর্কে জানার পর এ নিয়ে তার আর কোন সন্দেহ ছিল না। 

মীরা একজন পার্ট-টাইম মডেল, যিনি দুই বছর আগে তার রুপান্তরিত লিঙ্গ পরিচয় তার পরিবারের কাছে প্রকাশ করেন। এই বিজ্ঞাপনে অভিনয় করার মাধ্যমে নিজের পরিচয় সম্পর্কে আরও আত্মবিশ্বাসী হয়েছেন, বলেন তিনি।

 

ছবি: বিজ্ঞাপনের অংশবিশেষ

এই বিজ্ঞাপন করলে সমালোচনার ঝড় উঠবে সমাজে, এমন আশঙ্কাও ছিল। বিশেষ করে হিন্দু প্রধান পুরুষতান্ত্রিক দেশে এমন প্রথাবিরোধী চিন্তাভাবনা কীভাবে গ্রহণ করা হবে তাও ভয়ের ব্যাপার। তবে, দর্শকরা প্রশংসার সাথেই গ্রহণ করেছেন এই বিজ্ঞাপনটিকে। 

ভারতে প্রায় ২০ লাখ রুপান্তরিত লিঙ্গের মানুষ রয়েছেন। ২০১৪ সালে তাদের সমঅধিকার নিশ্চিত করে রুল জারি করে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। কিন্তু তারপরও তাদের বিরুদ্ধে কুসংস্কার এখনও প্রবলভাবে বিদ্যমান। 

দেশটিতে রুপান্তরিত লিঙ্গের প্রতি সবচেয়ে সংবেদনশীল রাজ্য কেরালা। ২০১৫ সালে তারা রুপান্তরিত লিঙ্গের ব্যক্তিদের প্রতি বৈষম্য রোধে আইন পাশ করে। 


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন