ঢাকা ১৯ সেপ্টেম্বার ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

উপকূলীয় এলাকায় বৃষ্টি ঝরাচ্ছে নিম্নচাপ, পানি বাড়ছে নদীতে

নিজস্ব প্রতিনিধি, একাত্তর
প্রকাশ: ১৪ সেপ্টেম্বার ২০২১ ১৫:০৭:২০ আপডেট: ১৪ সেপ্টেম্বার ২০২১ ২০:০২:৪৭
উপকূলীয় এলাকায় বৃষ্টি ঝরাচ্ছে নিম্নচাপ, পানি বাড়ছে নদীতে

বঙ্গোপসাগরে গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে বৃষ্টি হচ্ছে উপকূলীয় এলাকায়। কয়েক ঘণ্টার বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে উপকূলের নিচু এলাকা। নৌ ও সমুদ্র বন্দরে বহাল আছে সতর্ক সংকেত। 

এদিকে, ভোলায় ইলিশা ঘাট ডুবে যাওয়ায় ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। নোয়াখালীর হাতিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। 

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ছয়টা থেকে ৯টা পর্যন্ত ৩০ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড হয়েছে খুলনায়। কয়েক ঘণ্টার বৃষ্টিতে পানি জমে যায় নগরীর বিভিন্ন এলাকায়। 

অন্যদিকে, ভোর থেকেই থেমে থেমে কখনো হালকা এবং কখনো ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে মোংলায়। ঝড়ো হাওয়ার শঙ্কায় বন্দরে ব্যাহত হচ্ছে পণ্য বোঝাই ও খালাসের কাজ। 

দক্ষিণের আরেক উপকূলীয় জেলা বরগুনায় সকাল থেকে টানা বৃষ্টিতে ভোগান্তিতে পড়েছে মানুষ। নদীর পানিও বেড়েছে স্বাভাবিকের থেকে বেশি।

আরও পড়ুন: চারটি সমুদ্র বন্দরে তিন নম্বর সর্তকতা সংকেত

আর, নিম্নচাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল পটুয়াখালীতে। নিরাপদ আশ্রয়ে চলে এসেছে উপকূলের জেলেরা। বিভিন্ন নদীর পানি স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে কিছুটা বেড়েছে। ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে পানি ঢুকেছে ১০টি গ্রামে।

সকাল থেকে বৃষ্টি হচ্ছে ঝালকাঠিতেও। পানি বেড়েছে সুগন্ধা ও বিষখালীসহ বিভিন্ন নদ নদীতে। এরই মধ্যে ২৫টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। 

এদিকে ভোলায় মেঘনার পানি বাড়ায় তলিয়ে গেছে ইলিশা ফেরিঘাট। ব্যাহত হচ্ছে ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটে ফেরি চলাচল। সকালে ঘাটে এসে দুর্ভোগে পড়েন যাত্রীরা। 

সাগর উত্তাল থাকায় সারাদেশের সাথে নৌ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন আছে নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার। সকাল থেকে লঞ্চ, স্টিমার, সি-ট্রাক চলাচল বন্ধ। 


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন