ঢাকা ১৯ সেপ্টেম্বার ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

মামলায় আটকে আছে ঝিনাইদহের খেলাধূলা

নাজমুল রানা ও রাজীব হাসান, একাত্তর
প্রকাশ: ১৪ সেপ্টেম্বার ২০২১ ১৯:১৬:৩১ আপডেট: ১৪ সেপ্টেম্বার ২০২১ ১৯:১৭:৫০
মামলায় আটকে আছে ঝিনাইদহের খেলাধূলা

বেহাল হয়ে আছে ঝিনাইদহের খেলার মাঠ ক্রীড়া সংস্থার কমিটি নিয়েও চলছে মামলা কোনো কমিটি না থাকায় তিন বছরের বেশি থমকে আছে সব টুর্নামেন্ট নিয়ে সংগঠকরা একে অপরকে দুষলেও কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছেন না

সবুজ ঘাসের দেশ যখন সে চোখে দেখে দারুচিনি দ্বীপের ভেতর। ঝিনাইদহের এই মাঠ দেখলে জীবানন্দের এমন কবিতা পড়ে আপনি স্মৃতিকাতর কিংবা রোমান্টিক হতেই পারেন। তবে অন্ধকারে বনলতা সেনের দেখা পাবেন না। মিলবে কেবল শত চোখের হতাশার গল্প

দিনে দিনে গোচারণভূমিতে পরিণত হয়েছে বীর শ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান স্টেডিয়াম। জরাজীর্ণ গ্যালারি, আর ক্রীড়া সংস্থার একমাত্র ভবনটিরও ধসে পড়ার দশা পাঁচিলে ফাটল যেকোনো সময় বড় দুর্ঘটনা ডেকে আনতে পারে;অবহেলার এই ছাপে আসতে পারে মৃত্যুও

তবুও নিয়ে কর্তৃপক্ষের হেলদোল নেই। আসলে কর্তৃপক্ষ যে কারা সেটাই জানা যাচ্ছে না ঠিক মতো। ক্রীড়া সংস্থার কমিটি নিয়ে মামলার জেরে বন্ধ রয়েছে ঝিনাইদহের খেলাধুলার সব কার্যক্রম উল্টো মাঠের বাইরে চলছে ক্ষমতা দখলে খেলা আর কাঁদা ছোড়াছুড়ি।

কমিটির কলকব্জার চাপা পড়ে নাভিশ্বাস উঠছে খেলাধুলায় জীবন গড়তে যাওয়া তরুণদের। অনেকেই ব্যক্তিগত উদ্যোগে অনুশীলন করলেও ফিকে হয়ে আসা ভবিষ্যত নিয়ে পড়ে যাচ্ছেন শঙ্কায়।

মাঠে খেলা না থাকায় তরুণ আর যুবারা ঝুঁকছে ভিডিও গেমসে, মাদকাসক্তিও বাড়ছে। তাই খেলা সংশ্লিষ্টরা দ্রুতই সংকট নিরসনের দাবি জানিয়েছেন

যদিও করোনা দোহাই দিয়ে ঘুমপাড়ানি গানই শোনাচ্ছে জেলা প্রশাসন। আর মুখে দিচ্ছে চিড়া ভেজানোর চুপচুপে বাণী। কমিটি নিয়ে জটিলতার বিষয়টিও এড়িয়ে গেছেন।

কথার পিঠে কথা চলছে ঠিকই, তবে খেলার চাকাটা ঘুরবে কবে? প্রশ্ন অনেক উত্তর নেই। ক্রীড়া সংস্থার কর্তারা আদতে হাত পা গুটিয়ে বসেই আছেন। লাখো তরুণের স্বপ্নের খেলাটাকে নিয়ে করছেন ছেলে খেলা


একাত্তর/এসএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন