ঢাকা ১৯ সেপ্টেম্বার ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

পরীমনির রিমান্ড: দুই বিচারকের ব্যাখ্যা হাইকোর্টকে হেয় করেছে

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ১৫ সেপ্টেম্বার ২০২১ ১৩:০৬:১৫ আপডেট: ১৫ সেপ্টেম্বার ২০২১ ২১:৪৪:২০
পরীমনির রিমান্ড: দুই বিচারকের ব্যাখ্যা হাইকোর্টকে হেয় করেছে

চিত্রনায়িকা পরীমনিকে দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফায় রিমান্ডে পাঠানোর বিষয়ে নিম্ন আদালতের দুই বিচারকের ব্যাখ্যায় অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট। 

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারোয়ারের হাইকোর্ট বেঞ্চে ওই দুই বিচারকের লিখিত ব্যাখ্যার উপর শুনানিতে একথা জানান। 

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আবু ইয়াহিয়া দুলাল ও সহকারি অ্যাটর্নি জেনারেল মিজানুর রহমান। আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী জেড আই খান পান্না। 

এসময় হাইকোর্ট ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, রিমান্ডের আদেশে যে ত্রুটি হয়েছে তা ওই দুই বিচারক বিশ্বাস করেন না। তারা হাইকোর্টকে শিক্ষা দিয়েছেন। তাদের ব্যাখ্যার মাধ্যমে হাইকোর্টকে হেয় করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন: ক্ষমা চাইলেন পরীমণিকে বারবার রিমান্ডে পাঠানো দুই বিচারক

হাইকোর্ট বলেন, তারা যে ব্যাখ্যা দিয়েছেন তা সুপ্রিম কোর্টের গাইড লাইন এবং আমাদের প্রচলিত আইনের বিরুদ্ধে। তাদের জবাবে আমরা সন্তুষ্ট নই। 

আবেদনকারীর আইনজীবী জেড আই খান পান্না বলেন, রিমান্ড নিয়ে বিচারিক আদালত উচ্চ আদালতের নির্দেশনা মানেন নাই। ফলে আদালত ব্যাখ্যায় সন্তুষ্ট হতে না পারায় তাদের আবারো ২৯ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ব্যাখ্যা দিতে হবে। 

এর আগে আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণিকে দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফায় রিমান্ডে পাঠানোর ব্যাখ্যা জানতে চেয়ে নিম্ন আদালতের দুই বিচারকের কাছে ব্যাখ্যা চায় হাইকোর্ট। ওই দুই বিচারক হলেন দেবব্রত বিশ্বাস ও আতিকুল ইসলাম। আদালতের কাছে জমা দেওয়া লিখিত ব্যাখ্যায় দুই বিচারক নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেন। 

ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের ওই দুই বিচারক তাদের লিখিত ব্যাখ্যায় বলেন, এটি অনিচ্ছাকৃত ভুল। 

আরও পড়ুন: জামিনের পর প্রথমবার আদালতে গেলেন পরীমনি

এর আগে সকালে পরীমনির বিরুদ্ধে দায়ের করা মাদক মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা হাইকোর্টে হাজির হয়ে মামলার নথি উপস্থাপন করলে তা গ্রহণ করেন হাইকোর্ট। 

শুনানিতে আদালত বিদেশি মদ ও এলএসডি পেলে সাজার পরিমান জানতে চাইলে তদন্ত কর্মকর্তা জানান, দুই থেকে পাঁচ বছরের সাজা হতে পারে। 

একাত্তর/আরএইচ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন